Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৮ মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বার ২০২১ | ১৩ আশ্বিন ১৪২৮ | ঢাকা, ২৫ °সে

পরীমণিকে নিয়ে মন্তব্য, সব হারালেন হেলেনা জাহাঙ্গীর!

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ৩০ জুলাই ২০২১, ০৭:৩৩ AM
আপডেট: ৩০ জুলাই ২০২১, ০৭:৪৫ AM

bdmorning Image Preview


দেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরীমণি তাকে ধর্ষণ ও হত্যা চেষ্টার অভিযোগ আনার পর থেকে আলোচনার শেষ নেই। বিষয়টি নিয়ে সংসদেও কথা উঠেছে। এ ঘটনা নিয়ে তখন বোটক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য হেলেনা জাহাঙ্গীর এক সাক্ষাৎকারে পরীমণিকেই দোষারোপ করেছেন। যদিও এবার দৃশ্যপট সম্পূর্ণ আলাদা। বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে দল-পদ সব হারিয়েছেন হেলেনা জাহাঙ্গীর। শুধু তাই নয়, আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপ-কমিটি থেকে সদ্য পদ হারানো হেলেনা জাহাঙ্গীরকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) রাতে গুলশান-২ এর ৩৬ নম্বর রোডের ৫ নম্বর বাসা থেকে তাকে আটক করা হয়। র‍্যাব জানায়, মাদক ও হরিণের চামড়া রাখায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

যদিও পরীমণির ঘটনায় হেলেনা জাহাঙ্গীর দাবি করেছেন, অভিযুক্ত আবাসন ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদের মতো মানুষ কিছুতেই পরীমণিকে ধর্ষণের চেষ্টা করতে পারেন না। আমরা জানি না এখানে ইনজাস্টিস হচ্ছে কিনা। আমরা জাস্টিসের অপেক্ষায় আছি। নাসির সাহেব উনি চার-পাঁচবার নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট উত্তরা ক্লাবের। আমি যতগুলো ক্লাবের সদস্য, উনি ততগুলো ক্লাবের সঙ্গে আছেন। উনার আচার-আচরণে কোনোদিনই আমরা খারাপ কিছু দেখিনি। এটা আমার ব্যক্তিগত অভিমত।

হেলেনা জাহাঙ্গীর বলেন, বোট ক্লাব ও গুলশান ক্লাবের আমিও মেম্বার। নাসির ভাই আমার বাসায় এসেছেন, দাওয়াত খেয়েছেন। আমি কোনোদিন উনার চোখের নজর খারাপ দেখিনি জানিয়ে এই নারী উদ্যোক্তা আরও বলেন, ছেলের বউসহ আমার মেয়েরা ক্লাবের অ্যাসোসিয়েট মেম্বার। তারা রাত আটটার পরে ঘরের বাইরে থাকুক আমি চাইব না। আমার বাসার সামনে গুলশান ক্লাব। ওরা কোনোদিন যায় না। ওরা বরং বান্ধবীদের বাসায় গেলেও সন্ধ্যা সাতটার মধ্যে বাসায় ফিরে আসে। 

তিনি পরীমণিকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‌‌‌‘আমি মনে করি, নায়িকা-গায়িকা সবকিছু বাদে সে তো একটা মানুষ।  সে তো একটা মেয়ে। সে রাত ১২টার সময় দুই গাড়ি ভরে সেই কোথায় বোট ক্লাব, সেখানে কীভাবে যায়? আমার প্রশ্ন এটাই। তাকে যে ধর্ষণ ও হত্যা চেষ্টা করা হয়েছে কেউই কিন্তু দেখেনি। আমরা যদি ১৫ সেকেন্ডের ভিডিওটা শুনি ভালো করে, সেখানে কিন্তু কোনো নারীর আওয়াজ আসেনি। 

হেলেনা জাহাঙ্গীর আরও বলেন, একটা ধর্ষণ চেষ্টা হওয়া নারী, যাকে নাকি হত্যা চেষ্টা করা হয়েছে সে মিডিয়ার সামনে হাসে কীভাবে। দেখলাম ডিবি অফিসের সামনে যখন গেল (পরীমণি), ও ক্যামেরার সামনে কেমন মুচকি মুচকি হাসতেছিল। একটা ধর্ষণ চেষ্টা হওয়া নারী যাকে হত্যা চেষ্টা করা হয়েছে সে এগুলো কেমনে করে! নাম্বার টু, দুই কোটি টাকা যদি তার সাথে লেনদেন হয়েই থাকে, আর সেই টাকার জন্য যদি নাসির উদ্দিন এমন করে থাকেন তাহলে সে তাকে চেনেন না কেন?

দুর্নীতি দমন কমিশনকে পরীমণির সম্পদের হিসাব চাওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমি দুদকের কাছে অনুরোধ করবো, তার যে সম্পদ আছে সে সম্পদের হিসাব ও জবাবদিহিতা চাইতে। অনেক বড় বড় নায়িকা-নায়করা বলছেন তিনি সাড়ে তিন কোটি টাকার গাড়িতে চড়েন কীভাবে। এমনও বলেছে যে সে এখন বনানীতে যে ফ্ল্যাটে থাকেন সেটা ২৫-৩০ কোটি টাকা দামের ফ্ল্যাট। তার একটা সোফার দাম দেড়-দুই লাখ টাকা। 

এদিকে একটি গোয়েন্দা সংস্থার দায়িত্বশীল সূত্র থেকে জানা গেছে, হেলেনা জাহাঙ্গীরের প্রায় ডজনখানেক ক্লাবে আসা যাওয়া ছিল। তিনি সবগুলো ক্লাবের সদস্য না হয়েও ক্লাবের সদস্যদের সঙ্গে পরিচয়ের সূত্রে সেখানে যেতেন। সেখানে তিনি অবৈধভাবে মদ পান করতেন।

ক্লাবগুলো হলো, কুমিল্লা ক্লাব, গুলশান অল কমিউনিটি ক্লাব, বিজিএমইএ অ্যাপারেল ক্লাব, বোট ক্লাব, গুলশান লেডিস ক্লাব, উত্তরা লেডিস ক্লাব, গুলশান ক্লাব, গুলশান সোসাইটি, বনানী সোসাইটি, গুলশান হেলথ ক্লাব, গুলশান নর্থ ক্লাব ও বারিধারা ক্লাব।

সম্প্রতি ‌‘বাংলাদেশ আওয়ামী চাকরিজীবী লীগ’ নামে একটি সংগঠনের পোস্টার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। পোস্টারে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি হেলেনা জাহাঙ্গীর আর সাধারণ সম্পাদক মাহবুব মনিরের নাম উল্লেখ করা হয়। এ সংগঠনে সদস্যপদের দেওয়ার কথা বলে বেশ কয়েকজনের কাছে তিনি টাকা দাবি করেন। আর এ কারণেই আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য পদ থেকে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয় বলে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, জাতীয় পার্টির প্রয়াত এইচ এম এরশাদ, ওবায়দুল কাদেরসহ আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতাদের সঙ্গে তোলা ছবি দিয়ে ফেসবুকে হেলেনা নিজেকে গ্রহণযোগ্য করে তুলতে চেয়েছিলেন। এছাড়াও তিনি রাজনীতির নামে বিভিন্ন সুবিধা নিয়েছেন।

সম্প্রতি ফেসবুক লাইভে এসে হেলেনা বলেন, ‘আমি যে কারো সঙ্গেই ছবি তুলতে পারি। এর মানে এই না যে, আমি বিএনপি বা জাতীয় পার্টির রাজনীতি করি। আমি আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনার রাজনীতি করি।’

ফেসবুকে ফলোয়ার বাড়ানোর জন্য এটিএন বাংলার সত্ত্বাধিকারী মাহফুজুর রহমানের সঙ্গে গান করার প্রস্তাব পেয়েছেন বলে গুজব ছড়িয়ে সমালোচনার মুখে পড়েন হেলেনা। এ সংক্রান্ত একটি ফোন রেকর্ড ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।
 
হেলেনার স্বামী জাহাঙ্গীর আলম একজন ব্যবসায়ী। ১৯৯০ সালে তারা বিয়ে করেন। দুজনে মিলে জয়যাত্রা গ্রুপের নামে প্রিন্টিং প্রতিষ্ঠান, এমব্রয়ডারি, প্যাকেজিং, স্টিকার এবং ওভেন গার্মেন্টস প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন। হেলেনা পোশাক শিল্প মালিকদের দুই সংগঠন বিজিএমইএ ও বিকেএমইএর সদস্য। এছাড়াও তিনি ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের (এফবিসিসিআই) সদস্য ও নির্বাচিত পরিচালক।

জয়যাত্রা টিভি নামে একটি আইপি টিভির প্রতিষ্ঠাতা হেলেনা জাহাঙ্গীর। বেশ কয়েকজন সাংবাদিক অভিযোগ করেছেন, এ আইপি টিভিতে কাজ করতে হলে টাকা দিয়ে আইডি কার্ড নিতে হয়। এতে সংবাদ প্রচার করতে হলেও টাকা গুনতে হয় সাংবাদিকদের। তবে এ অভিযোগের বিষয়ে হেলেনা কখনও কথা বলেননি।  

এদিকে বৃহস্পতিবার নিজের ফেসবুকে তিনটি ছবি পোস্ট করে ‘ওহে নিন্দুকেরা, ভালোবাসা নাও’  এমন ক্যাপশনে লিখেছেন,চিত্রনায়িকা পরীমণির 

Bootstrap Image Preview