Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ০৩ মঙ্গলবার, আগষ্ট ২০২১ | ১৯ শ্রাবণ ১৪২৮ | ঢাকা, ২৫ °সে

বিচ্ছিন্ন ঢাকায় ঢুকছে যাত্রীবাহী বাস

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২২ জুন ২০২১, ১২:০৪ PM
আপডেট: ২২ জুন ২০২১, ১২:০৪ PM

bdmorning Image Preview


করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় রাজধানী ঢাকার আশপাশের সাতটি জেলায় জনসাধারণ ও গণপরিবহন চলাচলসহ সার্বিক কার্যাবলীর ওপর নয় দিনের জন্য নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে সরকার। নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও রাজধানীতে চলছে আন্তঃজেলার গণপরিবহন।

মঙ্গলবার (২২ জুন) সকালে রাজধানীর আসাদগেট, শুক্রাবাদ, কলাবাগান এবং সাইনবোর্ড ও শনিরআখড়া এলাকা ঘুরে দেখা যায়, গাজীপুর- নারায়ণগঞ্জও থেকে রুটে চলাচলরত প্রতিটি গণপরিবহনই যাত্রী পরিবহন করছে। দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরাও তেমন একটা বাধা দিচ্ছে না। তবে দূরপাল্লার কোনও বাস ছেড়ে যাওয়া বা ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। 

বাসের চালক ও স্টাফরা জানান, গাজীপুর জেলা বিধিনিষেধের আওতায় থাকায় ঢাকা জেলার শেষ সীমানা থেকে গাড়ি ঘুরিয়ে পুনরায় গন্তব্যে যাচ্ছেন তারা। তবে এমন প্রতিটি গাড়িকেই মুখোমুখি হতে হচ্ছে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের। রাজধানী রাসেল স্কয়ার এলাকায় পুলিশের চেকপোস্টে প্রায় প্রতিটি অন্তঃজেলা ও আন্তঃজেলার গণপরিবহনকে দাঁড় করিয়ে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়টি যাচাই করতে দেখা যায়।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সাইনবোর্ড-গুলিস্তান সড়কের সাইনবোর্ড অংশে পুলিশের একটি চেকপোস্ট রয়েছে। সেখানে ‘রাস্তা বন্ধ’ লেখা পুলিশের একটি স্টিকার যুক্ত ব্যারিকেড রয়েছে। সেখান থেকে কিছু দূরে কয়েকজন পুলিশ সদস্য দাঁড়িয়ে রয়েছেন। যাত্রী পরিববহনের দায়ে কয়েকটি বাস ও লেগুনাকে আটকে রাখতে দেখা গেছে। তবে বাকি সবগুলো বাস ভরপুর যাত্রী নিয়ে ঢাকার দিকে ছেড়ে গেলেও বাধা দেওয়া হচ্ছে না।

এ সময় আটকে রাখা একটি লেগুনার চালক সিরাজ উদ্দিন বলেন, ‘আমার লেগুনা আটকে রাখা হলো। কিন্তু দেখেন শতশত বাস-লেগুনা যাত্রী নিয়ে গুলিস্তানে যাচ্ছে। তাদের আটকানো করা হচ্ছে না।’

শনিরআখড়া এলাকায় দেখা গেছে, ঢাকা থেকে নারায়ণগঞ্জমুখী লোকাল পরিবহনগুলো যাত্রী পারাপার করছে। তবে এ সময় ঢাকা-কোম্পানীগঞ্জগামী তিসা গোল্ডেন নামের একটি বাস যাত্রী নিয়ে ঢাকা থেকে বের হওয়ার সময় আটকানো হয়। পরে বাসটির নামে ট্রাফিক আইনে মামলা করেন সার্জেন্ট বিষ্ণু।

এ সময় তিনি  বলেন, ‘গতকাল ঢাকার আশপাশের সাত জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়। লকডাউনের মধ্যে নারায়ণগঞ্জ জেলাও রয়েছে। ঢাকা থেকে দূরপাল্লার কোনও বাস আমরা যেতে দিচ্ছি না। এ কারণে বাসটি আটক করা হয়েছে।’

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে চলছে গণপরিবহণবাসের চালক নাসির উদ্দিন বলেন, ‘আমরা নোয়াখালী থাকি। কাল যাত্রী নিয়ে ঢাকায় আসার পর শুনি লকডাউন দেওয়া হয়েছে। হঠাৎ করেই লকডাউন দেওয়ায় আমরা বিপদে পড়েছি।’

এদিকে, পর্যাপ্ত গণপরিবহন না পেয়ে নারায়ণগঞ্জের সাইনবোর্ড থেকে যাত্রাবাড়ী পর্যন্ত পুরো সড়কে বিপুল সংখ্যক মানুষকে বৃষ্টির মধ্যে গণপরিবহণের জন্য অপেক্ষা করতে দেখা গেছে।

আজ (মঙ্গলবার) থেকে মানিকগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, গাজীপুর, মাদারীপুর, রাজবাড়ী ও গোপালগঞ্জ জেলায় লকডাউন কার্যকর হয়েছে। যা ৩০ জুন পর্যন্ত চলবে।

Bootstrap Image Preview