Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২২ মঙ্গলবার, জুন ২০২১ | ৭ আষাঢ় ১৪২৮ | ঢাকা, ২৫ °সে

কনে সাজতে বিউটি পার্লারে যাওয়ার পথে তরুণীকে অপহরণ, দেড় মাস ধরে ধর্ষণ!

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০ জুন ২০২১, ০৬:৫১ PM
আপডেট: ১০ জুন ২০২১, ০৬:৫১ PM

bdmorning Image Preview


রাজধানী থেকে এক তরুণীকে (২২) তুলে এনে দীর্ঘ দেড় মাস রাজবাড়ী জেলা শহরের বড়পুল এলাকার রাবেয়া টাওয়ারে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ অভিযোগে ফরিদপুর জেলা শহরের রাজবাড়ী রাস্তার মোড় এলাকার 'বিসমিল্লাহ মটরর্স'-এর মালিক রুহুল আমিনকে (৩১) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে ওই তরুণী বাদী হয়ে রুহুল আমিনকে আসামি করে রাজবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার বাদী ওই তরুণী জানান, ২০২০ সালের ৬ জানুয়ারি মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তার সঙ্গে রুহুল আমিনের পরিচয় হয়। এ পরিচয়ের সূত্র ধরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরই মাঝে তার বিয়ে ঠিক হয়। গত ১৮ এপ্রিল তিনি বিয়ের সাজ সাজতে রাজধানী ঢাকার দক্ষিণখান এলাকার একটি বিউটি পার্লারে যাওয়ার সময় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে রুহুল আমিন তাকে ঢাকার অজ্ঞাত বাসায় ২২ এপ্রিল পর্যন্ত আটকে রাখেন। পরবর্তীতে তাকে রাজবাড়ী জেলা শহরের রাবেয়া টাওয়ারের অষ্টম তলায় একটি বাসায় এনে তোলেন। সেখানে তাকে আটকে রেখে দিনের পর দিন ধর্ষণ করেন। তিনি বিয়ের জন্য চাপ দিলে তাকে মারপিট করেন এবং প্রাণনাশের হুমকি দেন। 

তিনি স্থানীয়দের সহযোগিতায় বিষয়টি রাজবাড়ী থানা পুলিশকে জানান। পরে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে পাঠায়। পরবর্তীতে তিনি রাজবাড়ী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

রুহুল আমিন জানিয়েছেন, তিনি ফরিদপুর জেলা শহরের রাজবাড়ী রাস্তার মোড় এলাকার টাটা কম্পানির ডিলার 'বিসমিল্লাহ মটরর্স'-এর মালিক। তিনি বিবাহিত এবং তার ৩টি সন্তান রয়েছে।

রাজবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) স্বপন কুমার মজুমদার জানিয়েছেন, তরুণীর দায়ের করা মামলার আসামি রুহুল আমিনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। 

Bootstrap Image Preview