Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৬ শুক্রবার, এপ্রিল ২০২১ | ৩ বৈশাখ ১৪২৮ | ঢাকা, ২৫ °সে

সাউথ আফ্রিকান করোনাভাইরাসে বাংলাদেশে বিপর্যয়

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮ এপ্রিল ২০২১, ১২:৪১ AM
আপডেট: ০৮ এপ্রিল ২০২১, ১২:৪১ AM

bdmorning Image Preview


দেশে করোনাভাইরাসের ইউকে ভ্যারিয়েন্ট প্রাপ্তির কথা আগেই জানিয়েছিল আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র আইসিডিডিআর,বি। তবে সম্প্রতি সাউথ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট পাওয়া যার পর দেশে হঠাৎ করেই ভ্যারিয়েন্টগুলোর মধ্যে আমূল পরিবর্তন দেখতে পান গবেষকরা। যার ফলে মার্চের তৃতীয় সপ্তাহে অন্যান্য ভ্যারিয়েন্টকে ছাড়িয়ে সর্বাধিক আধিপত্য বিস্তারের নজির পান তারা। বুধবার (৭ এপ্রিল) এসব তথ্য আইসিসিডিডিআর,বি তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে।

প্রকাশিত তথ্য থেকে জানা যায়, প্রতিষ্ঠানটি সর্বপ্রথম গত ৬ জানুয়ারি ইউকে ভ্যারিয়েন্টের সন্ধান পায়। যদিও আন্তর্জাতিক সংস্থা জিসএইডের তথ্য বলছে, ইউকে ভ্যারিয়েন্ট দেশে ডিসেম্বর মাসেই প্রবেশ করে। এই ভ্যারিয়েন্ট উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পায় মার্চের দ্বিতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত। যা শতকরা ৫২ শতাংশ পজিটিভ নমুনার মধ্যে পাওয়া গেছে।

তথ্য বলছে সাউথ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট দেশে প্রবেশের পর পর উল্লেখযোগ্যভাবে একটি পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়। যার ফলে মার্চের তৃতীয় সপ্তাহে অন্যান্য ভ্যারিয়েন্টকে ছাড়িয়ে সর্বাধিক আধিপত্য বিস্তারের নজির পায় তারা। মার্চের চতুর্থ সপ্তাহে দেখা গেছে অন্যান্য যতগুলো ভ্যারিয়েন্ট আছে তার ৮১ শতাংশই সাউথ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট।

আইসিডিডিআর,বি জানায়, ১ জানুয়ারি থেকে ২৪ মার্চ পর্যন্ত আইইডিসিআর এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরের সহায়তায় দেশে করোনার ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে কাজ করে। এর জন্য ১৬ হাজার ২৬৫টি নমুনা পিসিআর টেস্ট করা হয়। যার মধ্যে ১৭ শতাংশ অর্থাৎ ২ হাজার ৭৫১টি নমুনা পজিটিভ পাওয়া যায়।

প্রতিষ্ঠানটির গবেষকরা জানায়, সম্প্রতি করোনার উচ্চ সংক্রমণ রোধে স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে।

Bootstrap Image Preview