Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ০২ মঙ্গলবার, মার্চ ২০২১ | ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭ | ঢাকা, ২৫ °সে

গৃহকর্মীকে ধর্ষণ চেষ্টায় যুবদল নেতা গ্রেফতার

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:৩৫ PM
আপডেট: ২৫ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:৩৫ PM

bdmorning Image Preview
ছবিঃ সংগৃহীত


বরিশালের বানারীপাড়ায় গৃহকর্মীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে চাখার ইউনিয়নের বিএনপি দলীয় সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ ইদ্রিস আলী সরদারের ছেলে যুবদল নেতা সুমন সরদারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। রবিবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে তাকে বরিশালে কোর্টের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

গত শনিবার (২৩ জানুয়ারি) রাতে ওই গৃহকর্মী বাদী হয়ে সুমন সরদারকে আসামী করে বানারীপাড়া থানায় শিশু ও নারী নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে সুমন সরদারকে গ্রেফতার করে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২৩ জানুয়ারী শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে চাখার ইউনিয়নের খলিশাকোটা গ্রামের প্রবাসী আসাদুজ্জামান রিপনের স্ত্রী পারভীন বেগমের বাসার ওই গৃহকর্মী বাড়ির বাগানে পাতা কুড়াতে গেলে পাশের বাড়ির ইউপি চেয়ারম্যান ইদ্রিস সরদারের ছেলে সাবেক ছাত্রদল ও বর্তমান যুবদল নেতা সুমন সরদার তাকে জাপটে ধরে টেনেহিচরে তার ঘরে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এ সময় বাধা দেওয়ায় তাকে মারধর করা হয়। ওই গৃহকর্মীর ডাকচিৎকারে প্রবাসী আসাদুজ্জামান রিপনের মা ও স্ত্রীসহ স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাকে রক্ষা করেন। ওইদিন রাতে নির্যাতিতা ওই গৃহকর্মী বাদী হয়ে থানায় মামলা করে। এর আগে কুপ্রস্তাব দেওয়াসহ তিন বার ওই গৃহকর্মীকে সুমন সরদার ধর্ষণের চেষ্টা করে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়।

২৪ জানুয়ারি দুপুরে বানারীপাড়া থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) জাফর আহম্মেদ ও উপ-পরিদর্শক মোক্তার হোসেন ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে মামলার বাদী, আসামীর বাবা-মা, স্ত্রী এবং প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষীদের বক্তব্য রেকর্ড করেন।

এ প্রসঙ্গে ওসি মোঃ হেলাল উদ্দিন বলেন, ওই গৃহকর্মীর অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা নেওয়া হয়েছে। এখন তদন্তপূর্বক পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এদিকে জানা গেছে, সুমন সরদারের বিরুদ্ধে এর আগে নারী নির্যাতন, ছিনতাই ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অভিযোগে বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। বিগত বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার আমলে সে চাখারে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিল বলে অভিযোগ রয়েছে। আসামী সুমন সরদারের পিতা চাখারের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলী সরদার ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ অস্বীকার করে ওই গৃহকর্মীকে তার ছেলে চরথাপ্পর দিয়েছে বলে স্বীকার করেন।

Bootstrap Image Preview