Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৫ বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২০২১ | ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭ | ঢাকা, ২৫ °সে

ধর্মস্থান ভাঙচুরের সমর্থন জাকিরের

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩ জানুয়ারী ২০২১, ০৯:০৭ AM
আপডেট: ০৩ জানুয়ারী ২০২১, ০৯:০৭ AM

bdmorning Image Preview
ছবি: সংগৃহীত


পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের কারাক জেলায় হিন্দু মন্দির ধ্বংসের ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর ঘটনাকে সমর্থন জানিয়ে একটি ভিডিওবার্তা প্রকাশ করেছে  ইসলামিক ধর্মপ্রচারক জাকির নায়েক। 

আন্তর্জাতিক চাপের মুখে পড়ে এখনও পর্যন্ত ৩০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পাকিস্তানের পুলিশ। 

গত ৩০ ডিসেম্বর পাকিস্তানের কারাক জেলার একটি প্রাচীন হিন্দু মন্দিরে হামলা চালায় সুন্নি দেওবান্দি রাজনৈতিক দল উলেমা-ই-ইসলাম-ফজল-এর একদল ধর্মান্ধ সদস্য। একজন ইমামের নেতৃত্বে ওই মৌলবাদীরা এসে মন্দিরটি ভেঙে গুড়িয়ে দেওয়ার পাশাপাশি তাতে আগুন ধরিয়ে দেয়।

এই ঘটনার ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে এর তীব্র নিন্দা করা হয়। শুক্রবার কূটনৈতিকদের মাধ্যমে এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে পাকিস্তানকে অবিলম্বে তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানায় ভারত। চাপে পড়ে ওই মন্দিরটি সরকারি অর্থে গড়ে তোলা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

এর মাঝেই ভিডিওবার্তায় ইসলামিক মৌলবাদীদের এই কাজে সমর্থন জানিয়ে সওয়াল করতে দেখা যায় জাকির নায়েককে। তিনি বলেন, ‘ইসলামিক দেশে মন্দির থাকা উচিত নয়। তাই পাকিস্তানে যে ঘটনা ঘটেছে তা ঠিকই হয়েছে।’ তার এই বক্তব্যের ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পরেই চাঞ্চল্য শুরু হয়েছে। জাকির নায়েককে অবিলম্বে গ্রেপ্তার করে ভারতে নিয়ে আসার দাবি জানিয়েছে বিভিন্ন হিন্দুত্ববাদী সংগঠন।

গত জুলাই মাসে পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে হিন্দু মন্দির তৈরি করার অনুমতি দিয়ে ইমরান খান পাপ করছেন বলেও মন্তব্য করেন জাকির। তার মতে, ‘শরিয়ত আইন অনুযায়ী ইসলামিক দেশে অমুসলিমদের প্রার্থনার জায়গা তৈরিতে অনুদান দেওয়া হারাম।

Bootstrap Image Preview