Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৯ সোমবার, এপ্রিল ২০২১ | ৬ বৈশাখ ১৪২৮ | ঢাকা, ২৫ °সে

ভয়াবহ দুঃসংবাদ দিল আবহাওয়া অধিদপ্তর

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:৩৯ AM
আপডেট: ২৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:৩৯ AM

bdmorning Image Preview


ছয়দিন আগে শৈত্যপ্রবাহ শুরু হয়েছিল। ফলে ঝেঁকে বসেছিল শীত। অল্প তাপমাত্রা বাড়লেও তীব্র শীত রয়েই গেছে। ফের তাপমাত্রা কমতে যাচ্ছে। আগামী দুদিনের মধ্যে বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। বৃষ্টি হলে কমে যাবে তাপমাত্রা।

এ বিষয়ে আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান বলেন, ‘বর্তমান যে অবস্থা, তা আর দু-একদিন থাকতে পারে। এরপর ২৭ ডিসেম্বর থেকে ফের তাপমাত্রা কমতে থাকবে। মূলত বৃষ্টি হলে তাপমাত্রা কমে যাবে। আর বৃষ্টি না পড়লে অত কমবে না। বৃষ্টি পড়লে বেশি কমবে তাপমাত্রা।’

আবহাওয়া পূর্বাভাসচিত্র পর্যালোচনা করে আবহাওয়াবিদরা বলেন, এই শৈত্যপ্রবাহ গত শৈত্যপ্রবাহের চেয়েও ভয়াবহ রকমের ঠাণ্ডা হবে। বিশেষ করে পঞ্চগড়-দিনাজপুর-নীলফামারী জেলায় তীব্র ঠাণ্ডা পড়বে। রাত ও সকালের তাপমাত্রা গত ৩০ বছরের (১৯৮১ থেকে ২০১০ সাল) এই সময়ের গড় তাপমাত্রার চেয়ে ৫ থেকে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস কম থাকবে।

আমেরিকার আবহাওয়া পূর্বাভাষ মডেল Global Forecast System (GFS) পূর্বাভাস মতে, ২৫ তারিখের পর থেকে একটি শৈত্যপ্রবাহ পঞ্চগড়-দিনাজপুর জেলার ওপর দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করা শুরু করবে। ২৭ থেকে ২৯ জানুয়ারি তারিখ পর্যন্ত পুরো দেশে তীব্র ঠাণ্ডা আবহাওয়া বিরাজ করবে।

এদিকে আগামী ২৪ ঘন্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারা দেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত রাজশাহী, রংপুর, বরিশাল, ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ঘণ কুয়াশা এবং দেশের অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

রাজশাহী, পাবনা, পঞ্চগড়, দিনাজপুর, সাতক্ষীরা, যশোর, কুষ্টিয়া এবং বরিশাল জেলার ওপর দিয়ে মৃদু শৈতপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা কিছু এলাকা থেকে প্রশমিত হতে পারে। সারা দেশের রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে এবং তা দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

Bootstrap Image Preview