Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৫ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২০২১ | ২ বৈশাখ ১৪২৮ | ঢাকা, ২৫ °সে

তিস্তার পানি না দেয়ায় বাংলাদেশ ইলিশ সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে: মমতা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩ জুলাই ২০১৯, ১০:৪৯ AM
আপডেট: ০৩ জুলাই ২০১৯, ১০:৪৯ AM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত


তিস্তার পানি দিতে না পারায় বাংলাদেশ পদ্মার ইলিশ সরবরাহ করা বন্ধ করে দিয়েছে বলে জানিয়েছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার বিধানসভার অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে দেগঙ্গার বিধায়ক রহিমা বিবির এক প্রশ্নে তিনি এ কথা জানান।

মমতা বলেন, “বাঙালি মাছে-ভাতে থাকতে ভালোবাসে। কিন্তু বাংলাদেশকে আমরা তিস্তার জল দিতে পারিনি। তাই ওরা আমাদের ইলিশ মাছ দেয়া বন্ধ করে দিয়েছে। ওরা আমাদের বন্ধু দেশ। কিন্তু জল নেই তো কোথা থেকে দেবো?”

তিনি আরও বলেন, “ইলিশের প্রতি আমাদের রাজ্যের বাঙালীর প্রীতির কথা মাথায় রেখে, আমরা ডায়মন্ডহারবারে একটি রিসার্চ সেন্টার তৈরি করি। তারা এখন ইলিশের ওপর কাজ করছেন। ওই গবেষণা যদি সফল হয়, সারা বিশ্বে আমরা ইলিশ সরবরাহ করতে পারব। ”

মমতা বলেন, “রাজ্যে ইলিশ নিয়ে কোনও অভাব নেই…৭০০ পুকুরে রাজ্য মাছ চাষ করছে। একটা মাছ দু’কেজি ওজন করতে দু’বছর সময় লাগে। এখন মাছ অন্য রাজ্য থেকে আসে। এরপর আর মাছ বাইরে থেকে আমদানি করতে হবে না।”

জানা গেছে, বাংলাদেশ ২০১২ সালের মাঝামাঝি থেকে ভারতে ইলিশ রফতানি বন্ধ করে দিয়েছে। তিস্তার পানির দাবিতে বাংলাদেশ অনড় থাকলেও ভারতের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো ইতিবাচক সাড়া পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে মমতা জানান, পরিস্থিতি যদি অনুকূল হতো, তাহলে ‘বন্ধুত্বপূর্ণ’ প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে পানিবণ্টন মেনে নিতেন তিনি।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “তিস্তার জলবণ্টন মেনে না নেয়ায় তারা দুঃখ পেয়েছে। আমার ক্ষমতা থাকলে, নিশ্চিতভাবেই আমি তাদের সঙ্গে তিস্তার জলবণ্টন মেনে নিতাম। আমার কোনো সমস্যা নেই। বাংলাদেশ আমাদের বন্ধু, এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।” 

কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন সাবেক ইউপিএ সরকারের আমল থেকেই তিস্তার পানি বণ্টনের জন্য বাংলাদেশ দাবি জানিয়ে আসছে। তবে, তিস্তার পানি না থাকার কারণ দেখিয়ে এই পানি বণ্টন চুক্তির বিরোধিতা করে আসছেন মমতা বন্দ্যোপাধায়।

Bootstrap Image Preview