Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ০৭ শুক্রবার, মে ২০২১ | ২৪ বৈশাখ ১৪২৮ | ঢাকা, ২৫ °সে

ঝিনাইদহে ২২ মাথার খেজুর গাছের সন্ধান!

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৭ জানুয়ারী ২০১৯, ০৬:৪৩ PM
আপডেট: ১৭ জানুয়ারী ২০১৯, ০৬:৪৩ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত


শীতের আগমনের সাথে সাথে খেজুর গাছ প্রস্তুত করতে ব্যস্ত সময় পার করছেন গাছিরা। অনেকেই খেজুর গাছ প্রস্তুত করে রস আহরন শুরু করেছে। বাংলাদেশের বৃহত্তর ফরিদপুর, যশোর, খুলনা, বরিশালসহ সারা দেশে কম-বেশি খেজুর চাষ করা হয়। তবে এ দেশী জাতের খেজুর মূলত: রস ও গুড় তৈরীর কাজে ব্যবহার হয়ে থাকে। দেশী জাতের খেজুর গাছে যে পরিমাণ ফল ধরে তা উন্নত মানের নয়, তাই ফল হিসাবে আহার করার তেমন প্রচলন নেই। তবুও এই দেশে বিচিত্র কিছু খেজুর গাছের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে।

ঝিনাইদহের বিভিন্ন গ্রামে বিচিত্র সব খেজুরগাছের সন্ধান মিলছে। সদর উপজেলার কাষ্টসাগরা ও কালীগঞ্জের বাকুলিয়া গ্রামে ৯ ও ১০ মাথাওয়ালা খেজুর গাছের পর এবার কোটচাঁদপুরে মিলেছে ২২ মাথা বিশিষ্ট খেজুর গাছ। এ সব গাছ দেখতে মানুষ প্রতিদিন গ্রামগুলোতে ভীড় জমাচ্ছে। মাটিতে একটি গাছ দাড়িয়ে থাকলেও কাণ্ড একাধিক। শীত মৌসুমে এ সব গাছের প্রতিটি মথায় ভাড় পেতে গাছিরা রস সংগ্রহ করে।

জানা গেছে, ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার কুশনা ইউনিয়ানের বহরামপুর গ্রামে ২২ মাথা বিশিষ্ট খেজুর গাছের সন্ধান মিলেছে। গ্রামের মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পিছনে এই খেজুর গাছের অবস্থান। খেজুর গাছটির মালিক বহরামপুর গ্রামের মৃত আবু তালেব মুন্সীর ছেলে ডাক্তার সলেমান মুন্সী। গাছের প্রত্যেকটি মাথায় আলাদা আলাদা সতেজ পাতা আছে। বিষয়টি জানাজানি হবার পর প্রতিবছর অনেক মানুষ খেজুর গাছটি দেখতে ভিড় করেন।

কুশনা ইউনিয়ানের ৭নং ওয়াডের্র মেম্বার সামাউল মিয়া ও বহরামপুর গ্রামের সবুজ মোল্লাহ জানান, এই খেজুর গাছটির আনুমানিক বয়স প্রায় ২০ বছর। গাছের একাধিক কাণ্ড থাকার বিষয়ে কোটচাঁদপুর উপজেলা কৃষি অফিসার সাজ্জাদ হোসেন জানান, এটি একটি জেনিটিক সমস্যা। হরমোন জনিত কারণে এক বীজপত্রি উদ্ভিদে একাধিক শাখা প্রশাখা হতে পারে। তবে সেটা হয় খুবই কম। ঝিনাইদহের বিভিন্ন গ্রামে এমন খেজুর গাছের অস্তিত্ব রয়েছে।

Bootstrap Image Preview