Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৫ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২০২১ | ২ বৈশাখ ১৪২৮ | ঢাকা, ২৫ °সে

সিরাজগঞ্জে নারীর শ্লীলতাহানি ও চাঁদাবাজির অভিযোগ

নারী ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯ নভেম্বর ২০১৮, ১১:৪৬ AM
আপডেট: ০৯ নভেম্বর ২০১৮, ১১:৪৬ AM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত ছবি


সিরাজগঞ্জে শাহজাদপুরে সাত পুলিশ সদস্যসহ ৫০ জনের নামে চাঁদাবাজি ও নারীর শ্লীলতাহানির মামলা হয়েছে।

বুধবার  (৭ নভেম্বর) বিকালে শাহজাদপুর উপজেলার শেলাচাপরী গ্রামের মৃত মোজাহার আলীর ছেলে অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে শাহজাদপুর আমলি আদালতে এ মামলা করেন।

তবে পুলিশ বলছে, হাতকড়াসহ আসামি ছিনতাইয়ের মামলা থেকে রক্ষা পাওয়ার কৌশল হিসেবে ওই আইনজীবী মামলাটি করেছেন।

আসামিদের মধ্যে উপজেলার রূপবাটি ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি কামরুল হোসেন ছাড়াও সাত পুলিশ সদস্য হলেন-শাহজাদপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) গোলজার হোসেন, সাচ্চু বিশ্বাস, সামিউল ইসলাম, মতিউর রহমান, আমজাদ হোসেন, কনস্টেবল ময়নুল হক ও কনস্টেবল মো. সুমন সরদার।

এ বিষয়ে মামলার বাদী হাবিবুর রহমান বলেন, আসামিদের সঙ্গে আমার পরিবারের জমি নিয়ে পূর্ব বিরোধ রয়েছে। এ নিয়ে আগের মামলাও রয়েছে। এর জের ধরে গত ২ নভেম্বর রাত সাড়ে ১১টার দিকে ওই সাত পুলিশ সদস্যকে নিয়ে আসামিরা আমার ভাই মিজানুর রহমানের বাড়িতে গিয়ে তার কাছে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন।

 এ সময় তারা বিবদমান জমির দাবি ছেড়ে দেওয়ার জন্য চাপ দেন এবং মামলাও তুলে নিতে বলেন।

আমার ভাই মিজানুর রহমান এতে রাজি না হলে এসআই গোলজার হোসেন তাকে মারধর করেন। এ সময় মিজানুর রহমানের স্ত্রী আরজিনা খাতুন (৩০) ঠেকাতে এলে তার শ্লীলতাহানি করেন এসআই সামিউল ইসলাম।

এ ব্যাপারে শাহজাদপুর থানার ওসি খাজা গোলাম কিবরিয়া বলেন, হাতকড়াসহ আসামি ছিনতাইয়ের মামলা থেকে রক্ষা পাওয়ার কৌশল হিসেবে অ্যাডভোকেট হাবিবুর রহমান একটি কোর্ট পিটিশন করেছেন। তদন্তে আসল সত্য উন্মোচন হবে।

Bootstrap Image Preview