Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ০৩ শুক্রবার, এপ্রিল ২০২০ | ১৯ চৈত্র ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

ওমানে সড়ক দুর্ঘটনায় মৌলভীবাজারের তিনজনসহ নিহত ৫ বাংলাদেশি

পংকজ কুমার, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৪:৫২ PM
আপডেট: ০৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৪:৫৮ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত


মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ওমানে সড়ক দুর্ঘটনায় ৫ বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে তিনজনের বাড়ি মৌলভীবাজারে। বাকি দুজনের চেহারা বিকৃত হয়ে যাওয়ায় এখনো শনাক্ত করা যায়নি।

নিহতরা হলেন- কুলাউড়ার হাজীপুর ইউনিয়নের বিলেরপার গ্রামের লিয়াকত আলী (৩৫), শরীফপুর ইউনিয়নের সঞ্জরপুর গ্রামের সবুর আলী (৩৩) ও কমলগঞ্জের আলীনগর ইউনিয়নের চিতলীয়া বাজারের টিলালাইনের আলম আহমদ (৩৫)। প্রবাসীদের মাধ্যমে নিহতদের এলাকায় মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে নিহত তিনজনের গ্রামের বাড়িতে শুরু হয় শোকের মাতম।

নিহতের স্বজনেরা জানান, গতকাল রবিবার বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে কাজ শেষে ঘরে ফেরার সময় প্রাইভেটকারের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই চার বাংলাদেশির মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেয়ার পর আরো একজনের মৃত্যু হয়।

ওমানে কর্মরত নিহত লিয়াকত আলীর শ্যালক জসিম উদ্দীন জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলেই তিনজনকে চিনতে পারলেও অপর দু’জনের চেহারা বিকৃত হওয়ায় চেনা যায়নি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য শামীম আহমদ জানান, আব্দুল বাছিতের ছেলে নিহত আলম আহমদ পাঁচ মাস আগে ওমানে যান। তার স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। তার মৃত্যুর সংবাদে গ্রামের বাড়িতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

সঞ্জরপুর গ্রামের নিহত সবুর আলীর মামাতো ভাই কামাল খান বলেন, আব্দুস শহীদের ছেলে সবুর আলী ১০ বছর ধরে ওমানে বসবাস করতেন। দুই বছর আগে দেশে আসে একবার। কিছুদিন থাকার পর আবার ওমান পাড়ি জমান। কামাল বলেন, তার মা আছেন, বাবা নেই। চার ভাই ও চার বোনের মধ্যে সে তৃতীয়। নিহত সবুরের ২ মেয়ে ১ ছেলে রয়েছে।

এ বিষয়ে হাজীপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাছিত বাচ্চু বলেন, ‘আমার ইউনিয়নের লিয়াকত আলীসহ নিহত তিনজনের লাশ যাতে তাড়াতাড়ি দেশে ফিরে আসে, সেজন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করছি'।

Bootstrap Image Preview