Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৬ বুধবার, ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

আজহারীর হাতে মুসলমান হওয়া ১১ জনকে ভারতে পাঠানো হয়েছে

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৮ জানুয়ারী ২০২০, ১০:১৩ AM
আপডেট: ২৮ জানুয়ারী ২০২০, ১০:১৪ AM

bdmorning Image Preview


লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলায় মাওলানা মিজানুর রহমান আজহারীর কাছে কালেমা পাঠ করে মুসলমান হওয়া সেই ১১ জন ভারতীয় নাগরিককে ভারতে ফেরত পাঠানো হয়েছে। সোমবার সকালে তাদের বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে ফেরত পাঠানো হয়। দুই মাসের ভিসা নিয়ে এরা গত ২০১৯ সালের ১৪ আগস্ট বাংলাদেশে আসে। অবৈধ অভিবাসী হিসেবে তাদের স্বদেশে পাঠানো হয়। এর আগে শনিবার (২৫ জানুয়ারি) রাতে রামগঞ্জ থানা পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করে।

জানা গেছে, ওই ১১ ভারতীয় নাগরিক দুই মাসের ভিসা নিয়ে বাংলাদেশের লক্ষ্মীপুর জেলার ইছাপুর গ্রামে আসেন। ধর্মান্তরিত ভারতীয় পাসপোর্টযাত্রী শঙ্কর অধিকারী ওরফে মনির হোসেন ইছাপুর ইউপির সংরক্ষিত মেম্বার ফাতেমা বেগমের বড় ছেলে এবং দক্ষিণ নারায়নপুর আ. হাই ডাক্তার বাড়ির মজিবুল হকের ছেলে হলেও কয়েক মাস যাবত হরিশ্চর গ্রামের হাফেজ আয়াত উল্যাহর বসত ঘরে ভাড়া থাকতো। তাদের পাসপোর্টের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও তারা অবৈধ ভাবে এখানে বসবাস করছিল। এরই মধ্যে গত শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) রাতে উপজেলার হাজীপুর পাটোয়ারীর বাড়িতে তাফসিরুল কোরআন মাহফিলে মাওলানা মিজানুর রহমান আজহারীর কাছে কালেমা পাঠ করে ওই ১১ জন ইসলাম গ্রহণ করেন। এর পর পরই পুলিশ তাদের অবৈধ অভিবাসী হিসেবে গ্রেপ্তার করে। বাংলাদেশে তাদের আত্মীয়-স্বজন রয়েছে।

রামগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, ঘটনা প্রকাশ পাওয়ার পর ১১ জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়। পরে এদের ফেরত পাঠানোর জন্য লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ থেকে আসা পুলিশ বিশেষ নিরাপত্তা দিয়ে বেনাপোল চেকপোস্টে নিয়ে আসে। সোমবার (২৭ জানুয়ারি) সকালে পুলিশ তাদেরকে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের হাতে তুলে দেয়। ইমিগ্রেশন পুলিশ তাদের কার্যক্রম শেষে ভারতে ফেরত পাঠানো হয়।

লক্ষ্মীপুর জেলার পুলিশ সুপার এএইচএম কামরুজ্জামান বলেন, মনির হোসেন বলে যিনি তার পরিবারসহ হিন্দু ধর্ম থেকে ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত হয়েছেন তার কাছে আমরা ভারতীয় বৈধ পাসপোর্ট পেয়েছি, যাতে তার নাম শঙ্কর অধিকারী। তার সঙ্গে অন্য যারা আছেন তাদের কয়েকজনরও বৈধ ভারতীয় পাসপোর্ট আছে। আর তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের জন্মসনদ গত ডিসেম্বর মাসে ঢাকার কেরানীগঞ্জ থেকে করা হয়েছে। তারা গত বছরের ১৪ আগস্ট ২ মাসের ভিসা নিয়ে বেনাপোল দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছিলেন। যথাযথ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তাদেরকে ভারতে ফেরত পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান।

ভারতীয় পাসপোর্ট যাত্রী শঙ্কর অধিকারী ওরফে মনির হোসেন বেনাপোল চেকপোস্ট নোম্যান্সল্যান্ডে সাংবাদিকদের বলেন, গত বছরের ১৪ আগস্ট দুই মাসের ভিসা নিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করি। আমাদের ভিসার মেয়াদ শেষ। আমাদের পৈতৃক বাড়ি লক্ষ্মীপুর জেলার রামগঞ্জ থানার ইছাপুর গ্রামে থেকে যাই। সেখানে অবস্থানরত অবস্থায় পুলিশ আমাদের ধরে বেনাপোল দিয়ে ভারতে পাঠিয়ে দিচ্ছে। বেনাপোল ইমিগ্রেশন ওসি (তদন্ত) মাসুম বিল্লাহ বলেন, ওই ১১ নাগরিক নিয়ম অনুযায়ী ইমিগ্রেশনের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে ফিরে গেছে।

Bootstrap Image Preview