Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৮ বুধবার, অক্টোবার ২০২০ | ১৩ কার্তিক ১৪২৭ | ঢাকা, ২৫ °সে

৫ হাজার টাকার মধ্যে সেরা ৫ স্মার্টফোন

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৮ জানুয়ারী ২০২০, ১০:০৫ PM
আপডেট: ১৮ জানুয়ারী ২০২০, ১০:০৫ PM

bdmorning Image Preview


স্মার্টফোন ছাড়া ব্যস্ত এই পৃথিবীতে চলাচল করা এখন প্রায় অসম্ভব। হটস্পট বা ওয়াই-ফাই ইন্টারনেট প্রযুক্তির সাহায্যে এই স্মার্টফোনই আমাদের হাতের মুঠোয় এনে দিচ্ছে নানা পরিষেবা বা সুযোগ সুবিধা। যদিও স্মার্টফোনের বৈশিষ্ট্য, কনফিগারেশন এবং বিভিন্ন ফাংশন নির্ভর করে এর নির্মাতা প্রতিষ্ঠান, মডেল, দামের পার্থক্য ইত্যাদির ওপর। চলুন জেনে নেই শিক্ষার্থী ও তরুণদের জন্য ৫,০০০ টাকার মধ্যে সাশ্রয়ী মূল্যের ৫টি স্মার্টফোন সম্পর্কে।

এলজি:

সাশ্রয়ী মূল্যে ভালো মানের ইলেকট্রনিক পণ্য দিয়ে বাংলাদেশে লাখো মানুষের আস্থা অর্জন করেছে এলজি করপোরেশন। দাম নাগালের মধ্যে রেখে উন্নত প্রযুক্তির বৈশিষ্ট্যযুক্ত স্মার্টফোনসহ মোবাইল শিল্পে প্রবেশ করেছে এলজি। এরই প্রেক্ষিতে ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে বাজারে আসে ৫,০০০ টাকার মধ্যে দুর্দান্ত একটি স্মার্টফোন ‘এলজি অ্যারিস্টো ২’।

এলজি অ্যারিস্টো ২

এলজির অন্যান্য বাজেট স্মার্টফোনের মতো অ্যারিস্টো ২ ফোনটিও অত্যন্ত বহন উপযোগী একটি ফোন এবং এর ওজন মাত্র ১৩৮ গ্রাম। এলজি অ্যারিস্টো ২ মডেলের ফোনটিতে রয়েছে ২,৪১০ এমএএইচ সক্ষমতার ব্যাটারি, যা স্ট্যান্ডবাই মোডে আপনাকে বিশ্বের সাথে যুক্ত রাখবে টানা ১৪ দিন ৮ ঘণ্টা। আর টক টাইম সুবিধা দেবে টানা ১৭ ঘণ্টা ৫ মিনিট। নির্বিঘ্নে চালানোর জন্য এই ফোনে রয়েছে ১ দশমিক ৪ গিগাহার্জের কোয়াড কোর কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৪২৫ চিপসেট।

অ্যান্ড্রয়েড ৭.১.২ নুগাট অপারেটিং সিস্টেমে চলা এই ফোনটি বেশ সহজেই ব্যবহার করা যায়। কম দামের মধ্যে ২ জিবি র‌্যাম ও ১৬ জিবি রম থাকায় এটি বাজারের অন্যান্য বাজেট ফোনের তুলনায় অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে। এছাড়া আপনি চাইলে মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করে এর স্টোরেজ ৩২ জিবি পর্যন্ত বাড়াতে পারেন। বাংলাদেশের বাজারে ফোনটির দাম ৪,৯৯০ টাকা।

সিম্ফনি:

ব্যবহারবান্ধব ইন্টারফেস, উজ্জ্বল ডিসপ্লে এবং প্রয়োজনীয় সব অ্যাপলিকেশনসহ বিভিন্ন বৈশিষ্ট্যের জন্য দেশে আকাশ ছোঁয়া খ্যাতি অর্জন করেছে সিম্ফনি। এছাড়া সাশ্রয়ী দামের মধ্যে স্মার্টফোন তৈরিতে সিম্ফনির বিশেষ কৃতিত্ব রয়েছে। ৫,০০০ টাকার মধ্যে ‘সিম্ফনি ভি ১০৫’ দুর্দান্ত একটি স্মার্টফোন।

সিম্ফনি ভি ১০৫

৫,০০০ টাকার মধ্যে সিম্ফনি ভি ১০৫ অন্যতম সেরা একটি স্মার্টফোন। এতে রয়েছে ২২০০ এমএইচের শক্তিশালী লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি। এই ফোনটি কিনলে আপনি ৯ ঘণ্টা টক টাইমের পাশাপাশি ২০০ ঘণ্টারও বেশি স্ট্যান্ডবাই টাইম উপভোগ করতে পারবেন।

সহজে চালানোর জন্য এই ফোনে রয়েছে অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.১ এর গো এডিশন। ৫ ইঞ্চির উজ্জ্বল ডিসপ্লের সাথে এতে আছে শক্তিশালী ডুয়েল ক্যামেরা। আর এই ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে ১ জিবি র‌্যাম ও ৮ জিবি রম। বাজারে মাত্র ৪,১০৫ টাকায় পাওয়া যাবে সিম্ফনি ভি ১০৫ ফোনটি।

ওয়ালটন:

বাংলাদেশি পণ্য ব্যবহারে গর্ববোধ করেন? তাহলে কিনতে পারেন ওয়ালটনের স্মার্টফোন। ওয়ালটন একটি বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান, যার সদর দপ্তর বাংলাদেশের কালিয়াকৈরে অবস্থিত। বাজেট স্মার্টফোন ছাড়াও সাশ্রয়ী মূল্যের বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রনিক পণ্য তৈরি করে থাকে ওয়ালটন। দেশীয় এই প্রতিষ্ঠানের তৈরি ‘ওয়ালটন প্রিমো এফ ৯’ ফোনটিকে রাখা যেতে পারে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ও তরুণ পেশাজীবীদের পছন্দের তালিকায়।

ওয়ালটন প্রিমো এফ ৯

নান্দনিক ডিজাইনের প্রিমো এফ ৯ ফোনটিতে রয়েছে আধুনিক সব বৈশিষ্ট্য। কম দামের মধ্যেই এই ফোনে রয়েছে উন্নতমানের অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই গো এডিশন। ওয়ালটনের এই ফোনটিতে রয়েছে ২,৫০০ এমএইচের শক্তিশালী লি-অন ব্যাটারি এবং ৫.৪৫ ইঞ্চির উজ্জ্বল ডিসপ্লে।

এই ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে ১ জিবির ডিডিআরথ্রি র‌্যাম ও ১৬ জিবি রম। এছাড়া মাইক্রো এসডি কার্ড ব্যবহার করে এর স্টোরেজ বাড়ানো যাবে ৬৪ জিবি পর্যন্ত। এই ফোনের সামনে ও পেছনে রয়েছে ৫ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। ওয়ালটন প্রিমো এফ ৯ এখন বাজারে পাওয়া যাচ্ছে ৪,৯৯৯ টাকায়।

ম্যাক্সিমাস:

মান বজায় রেখে সাশ্রয়ী মূল্যে মোবাইল নির্মাতা আরেক সুপরিচিত ব্র্যান্ড ম্যাক্সিমাস। গত এক দশকে বেশ কিছু স্মার্টফোন বাজারে এনেছে প্রতিষ্ঠানটি। বাংলাদেশের বাজারে তুলনামূলক কম পরিচিত ব্র্যান্ড হলেও, শিক্ষার্থী ও তরুণদের জন্য সাশ্রয়ী মূল্যের বেশ কয়েকটি স্মার্টফোন এনেছে ম্যাক্সিমাস। এর মধ্যে ‘ম্যাক্সিমাস পি৭ প্লাস’ মডেলের স্মার্টফোনটি অন্যতম।

ম্যাক্সিমাস পি৭ প্লাস

২০১৯ সালের মে মাসে বাজারে আসে ম্যাক্সিমাস পি৭ প্লাস মোবাইল। ৫.৪৫ ইঞ্চি উজ্জ্বল ডিসপ্লের এই ফোনটির পেছনে রয়েছে উন্নত প্রযুক্তির ৫ মেগাপিক্সেলের একটি ক্যামেরা। সেলফি তোলার জন্য সামনে আছে ৫ মেগাপিক্সেলের আরও একটি ক্যামেরা। এছাড়া রয়েছে কম্প্যাস, লাইট সেন্সর ও প্রক্সিমিটি সেন্সরের মতো আধুনিক সব ফিচার।

অ্যান্ড্রয়েডের ৮.১ ওরিও গো অপারেটিং সিস্টেমের সাথে মিডিয়াটেকের শক্তিশালী চিপসেট ফোনটিকে বাজারে থাকা এই বাজেটের অন্যান্য ফোন থেকে অনেকটাই এগিয়ে রেখেছে প্রতিযোগিতায়। ফোনটিতে রয়েছে ১ জিবি র‌্যাম ও ৮ জিবি রম। ম্যাক্সিমাস পি৭ প্লাস ফোনের দাম ধরা হয়েছে ৪,৯০০ টাকা।

মাইক্রোম্যাক্স:

আপনি যদি সাধারণ ব্র্যান্ডের বাইরে গিয়ে অন্য কোনো স্মার্টফোন ব্যবহার করতে চান তাহলে বেছে নিতে পারেন মাইক্রোম্যাক্স। ভারতের অন্যতম ইলেক্ট্রনিক পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মাইক্রোম্যাক্স ইনফরমেটিকস লিমিটেড। বিশ্বের ১০ম বৃহত্তম মোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে মাইক্রোম্যাক্স বাজারে নিয়ে এসেছে সাশ্রয়ী মূল্যের বেশ কিছু ফিচার ফোন, ফ্যাবলেট এবং স্মার্টফোন। ‘মাইক্রোম্যাক্স বোল্ট কিউ ৩৮১’ ৫,০০০ টাকার মধ্যে তেমনই একটি স্মার্টফোন।

মাইক্রোম্যাক্স বোল্ট কিউ ৩৮১

১ জিবি র‌্যাম ও ৮ জিবি রমের এই ফোনটিতে ডুয়েল সিম ব্যবহারের সুবিধা, ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ও গ্রাভিটি সেন্সরসহ রয়েছে প্রয়োজনীয় প্রায় সকল ফিচার।

এই ফোনের পেছনে ৫ মেগাপিক্সেলে এবং সামনে রয়েছে ০.৩ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। এর শক্তিশালী ২০০০ এমএএইচ ব্যাটারি আপনাকে দেবে ৯ ঘণ্টার টকটাইম এবং ১৮০ ঘণ্টার স্ট্যান্ডবাই টাইম। মাইক্রোম্যাক্স বোল্ট কিউ ৩৮১ মডেলের এই ফোনের মূল্য ৪,৮৯০ টাকা।

এখানে জনপ্রিয় কিছু ব্র্যান্ডের ৫,০০০ টাকার মধ্যে থাকা সেরা ৫টি স্মার্টফোন নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। যেসব ফোনে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী ও তরুণদের জন্য রয়েছে প্রয়োজনীয় প্রায় সব ফিচার। তবে এই ফোনগুলোর দাম সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে যেকোন সময় পরিবর্তন হতে পারে। এর মধ্য থেকে প্রয়োজন অনুযায়ী আপনি বেছে নিতে পারেন আপনার পছন্দের স্মার্টফোনটি।

Bootstrap Image Preview