Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৬ বৃহস্পতিবার, জুলাই ২০২০ | ১ শ্রাবণ ১৪২৭ | ঢাকা, ২৫ °সে

স্ত্রীর গায়ে আগুন দিয়ে স্বামীর আত্মহত্যা, পুড়ল ১০ বছরের মেয়েও

পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ১৩ জুন ২০১৯, ০৯:২৪ PM
আপডেট: ১৩ জুন ২০১৯, ১০:১২ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত ছবি


বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলায় শাজেনূর বেগম (৩০) নামের এক নারীর শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন লাগিয়ে দিয়েছেন তার দ্বিতীয় স্বামী বেলাল হোসেন।

শাজেনূরের ঘরেও আগুন লাগানো হয়। এতে পুড়ে মারা গেছে শাজেনূরের প্রথম স্বামী মোহাম্মদ হাসানের ১০ বছরের মেয়ে সখিনা আক্তার। শাজেনূর উপজেলার রুহিতা গ্রামের আব্দুল মালেকের মেয়ে।

বুধবার (১২ জুন) গভীর রাতে পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের রুহিতা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। অপরদিকে, ঘটনার কয়েক ঘণ্টা পর অভিযুক্ত বেলাল হোসেন (৩৫) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। পরদিন বৃস্পতিবার (১৩ জুন) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে পাথরঘাটা উপজেলার সদর পাথরঘাটা ইউনিয়নের পূর্ব হাতেমপুর গ্রামের খালের পাশে একটি আম গাছ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় বেলালের মরদেহ উদ্ধার করেন পুলিশ।

শাজেনূরকে পাথরঘাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। পরে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হলে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে দগ্ধ শাজেনূর বলেন, ‘ঘরে আগুন দেখে আমি বাইরে এলে আমার দ্বিতীয় স্বামী (সম্প্রতি তালাক হয়েছে) বেলাল হোসেনসহ কয়েকজন লোক আমাকে জাপটে ধরে আমার গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।’

পাথরঘাটা উপজেলা হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার মো. জিয়া উদ্দিন বলেন, ‘শাজেনুরের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তার শরীরের ৮০ ভাগই পুড়ে গেছে।’

প্রতিবেশি আব্বাছ আকন ও মো. আলমসহ স্থানীয় কয়েকজন জানান, রাত দুইটার দিকে চিৎকার শুনে তারা দৌড়ে যান। এ সময় ঘরে আগুন জ্বলছিল। ১৫ মিনিটের মধ্যে ঘর পুড়ে যায়। পরে ওই ঘর থেকে শাজেনূরের মেয়ে সখিনার পুড়ে যাওয়া লাশ উদ্ধার করা হয়। আগুন থেকে বাঁচতে শাজেনূর ঘর থেকে বাইরে এলে তার শরীরে পেট্রোল দিয়ে আগুন দেয় বেলাল হোসেনসহ আরো কয়েকজন। এতে শাজেনূরের শরীর আগুনে পুড়ে যায়।

পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হানিফ সিকদার বলেন, ‘পাথরঘাটার পূর্ব হাতেমপুর গ্রামের খালের পাড়ে আম গাছে গলায় ফাঁস দেন বেলাল হোসেন। পরে তাঁর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আমাদের ধারণা অনুশোচনায় গলায় ফাঁস দিয়ে বেলাল আত্মহত্যা করেছেন। এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।’

এছাড়াও পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. হুমায়ুন কবির বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে শাজেনূরের চিকিৎসার জন্য ১৫ হাজার টাকা দেওয়া হয়েছে। আমরা তার সার্বিক খোঁজখবর রাখছি।’

Bootstrap Image Preview