Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৪ মঙ্গলবার, নভেম্বার ২০২০ | ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ | ঢাকা, ২৫ °সে

পাথরঘাটায় শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের ঘটনায় মূল আসামি গ্রেফতার 

ইমরান হোসাইন, পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধিঃ
প্রকাশিত: ১৫ এপ্রিল ২০১৯, ০৯:৪৯ AM
আপডেট: ১৫ এপ্রিল ২০১৯, ০৯:৪৯ AM

bdmorning Image Preview


বরগুনার পাথরঘাটায় অষ্টম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থী ধর্ষণের ঘটনায় মূল আসামি জলিল প্যাদাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রবিবার (১৪ এপ্রিল) রাত ১১টার দিকে তাকে আটক করা হয়। জলিল প্যাদা পাথরঘাটা সদর ইউনিয়নের পশ্চিম বাদুরতলা গ্রামের শাহজাহান প্যাদার ছেলে। এমামলার অপর আসামি আলতাফ হোসেন পলাতক। 

জেলা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেনের নির্দেশনায় মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পাথরঘাটা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) সাইদুর রহমানের নেত্রীতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বরগুনা জেলার নিশানবাড়িয়ার গাজিমাহমুদ এলাকা তাকে আটক করা হয়।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) উপজেলার পশ্চিম বাদুরতলা গ্রামের জলিল প্যাদা নামে এ যুবক পার্শ্ববর্তী দক্ষিণ  হাড়িটানা গ্রামের অষ্টম শ্রেণীতে পড়ুয়া শিক্ষার্থী সুমাইয়া আক্তারকে হরিনঘাটা বনে ঘুরতে নিয়ে যায়। এসময় গহীন বনে শিক্ষার্থীকে নিয়ে ধর্ষণ করে জলিল প্যাদা। ওই এলাকার ট্রলার চালক আলতাফ হোসেন ঘটনাটি দেখে ফেলে এবং ধর্ষক জলিলকে তাড়া করে। এসময় জলিল পালিয়ে গেলে তিনিও ওই শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়।

পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে পুলিশের সহায়তায় সুমাইয়াকে হাসপাতালে নিয়ে আসে।

গত ১২ এপ্রিল ওই শিক্ষার্থীর মা জয়নব বাদী হয়ে পাথরঘাটা থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। 

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) সাইদুর রহমান জানান, জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশনায় গোপন সংবাদের ভিত্তেতে বরগুনা নিশান বাড়িয়ার মাহমুদগাজি নামক যায়গা থেকে তাকে আটক করা হয়। অপর আসামি আলতাফ হোসেনকে গ্রেফতারে জোর প্রচেষ্টা চলছে। ভিকটিমকে মেডিকেল পরীক্ষা করানো হয়েছে।

পাথরঘাটা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হানিফ শিকদার জানান, ঘটনার পর থেকে পুলিশ অভিযান চালিয়ে মামলার মূল আসামি জলিল প্যাদাকে গ্রেফতারে করতে সক্ষম হয়। মামলার অপর আসামি আলতাফ হোসেনকেও গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে। 


 

Bootstrap Image Preview