Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৮ শনিবার, মার্চ ২০২০ | ১৪ চৈত্র ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

'নৌকা প্রতীকের জন্য জীবন দিতে প্রস্তুত আছি'

আবু নাসের হুসাইন, সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধিঃ
প্রকাশিত: ০২ এপ্রিল ২০১৯, ০৯:৩২ PM
আপডেট: ০২ এপ্রিল ২০১৯, ০৯:৩২ PM

bdmorning Image Preview


বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের পরিচালক এ্যাড. জামাল হোসেন মিয়া বলেছেন, 'নৌকা স্বাধীনতার প্রতীক, নৌকা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতীক, নৌকা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতীক, নৌকা উন্নয়নের প্রতীক, নৌকা জনসাধারণের প্রতীক, এই নৌকার জন্য জীবন দিতে প্রস্তুত আছি'। যতদিন বেঁচে থাকবো আওয়ামী লীগের প্রতীক নৌকার সাথেই থাকবো।

মঙ্গলবার (২ এপ্রিল) বিকাল ৫টায় ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার ৬নং তালমা ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আলহাজ দেলোয়ারা বেগম দায়িত্বভার গ্রহণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

এসময় তিনি বলেন, সালথা-নগরকান্দার মাটি আওয়ামী লীগের ঘাটি। সাধারণ জনগণকে সাথে নিয়ে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মনিরুজ্জামান সরদারকে উপজেলা নির্বাচনে ও আমার মাতা আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী আলহাজ  দেলোয়ারা বেগমকে তালমা ইউনিয়ন পরিষদ উপ-নির্বাচনে বিজয়ী করে তা প্রমাণ করে দিয়েছি। দেশ ও জনগণের কল্যাণে সর্বক্ষণ কাজ করে যাবো ইনশাল্লাহ।  

ইউপি প্যানেল চেয়ারম্যান কুদ্দস মোল্যার সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও নগরকান্দা উপজেলার নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান সরদার, নবনির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান দেলোয়ারা বেগম, জেলা পরিষদের সদস্য কামাল হোসেন মিয়া, রামনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান কুদ্দস ফকির, তালমা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি তৈয়বুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক সিরাজ খলিফা।

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগ নেতা জাকারিয়া খান খোকা, মীর সাহিদুজ্জামান রিফাত, আওয়ামী লীগ নেতা  মজিবুর রহমান, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম.এম নাহিদুজ্জামান নাহিদ, উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি লিয়াকত হোসেন মিয়া, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক এস.এম রফিকুল ইসলাম মিয়া, উপজেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি জাকির হোসেনসহ উপজেলার হাজারো নেতাকর্মী ও সমর্থকরা।

এসময় ইউনিয়ন চত্বর মুখরিত হয়ে উঠে। 

উল্লেখ্য, তালমা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা আবু শহীদ মিয়া মৃত্যুবরণ করলে ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদটি শূন্য হয়। পরে উপনির্বাচনে তার স্ত্রী দেলোয়ারা বেগমের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। 
    


 

Bootstrap Image Preview