Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২১ বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ২০২১ | ৭ মাঘ ১৪২৭ | ঢাকা, ২৫ °সে

ফটিকছড়িতে প্রেমের অপরাধে যুবককে হত্যার অভিযোগ

মনজুর হোসেন, ফটিকছড়ি (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ১১:৫০ AM
আপডেট: ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ১১:৫০ AM

bdmorning Image Preview


চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে প্রেম করার অপরাধে শিমুল মহাজন (৩৫) নামে এক যুবককে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় উপজেলার ভূজপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন নিহতের স্বজনরা। পুলিশ এ ঘটনায় নিহত শিমুলের ‘প্রেমিকা’র বাবা সন্তোষ কুমার দে কে গ্রেফতার করেছে।

শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার ভূজপুর থানার দাঁতমারা ইউনিয়নের কার্তিকপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শিমুল মহাজন ওই এলাকার জনৈক মৃত অনিল মহাজনের পুত্র।

মামলার এজহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শিমুল মহাজনের সাথে সন্তোষ কুমার দে’র মেয়ের দীর্ঘ দিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সম্পর্কের সুবাদে তারা প্রায় একে অপরের সাথে দেখা করতেন। সর্বশেষ গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসে শিমুল তার প্রেমিকার সাথে দেখা করতে গেলে তার (প্রেমিকার) স্বজনরা তাকে আটক করে এবং তিনদিন ধরে বেঁধে রেখে নির্যাতন চালায়।

এদিকে শিমুলকে খুঁজে না পেয়ে তার পরিবার ভূজপুর থানায় নিখোঁজ ডায়রি করে। জিডির খবর পেয়ে প্রেমিকার পরিবার তাকে থানায় সোপর্দ করে। পরে থানা থেকে শিমুলের পরিবার তাকে বাড়িতে নিয়ে গেলে সেখানে ১৬ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাতে তার মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে ভূজপুর থানার পুলিশ শিমুলের লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করে।

এ ব্যাপারে ভূজপুর থানার ওসি শেখ আব্দুল্লাহ বলেন, ‘শিমুলের মৃত্যুর কারণ জানা যায়নি। হাসপাতাল থেকে তার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় প্রিয়াংকার পিতা সন্তোষ কুমার দে’কে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নিহত শিমুল মহাজনের চাচা সাধন মহাজন বলেন, ‘আমাদের ছেলের মৃত্যুর জন্য সস্তোষসহ তার পরিবার ও আশপাশের কয়েকজন দায়ী। তারা শারীরিক নির্যাতন করে শিমুল মহাজনকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিয়েছে। আমরা এই ঘটনার সুষ্ট বিচার দাবি করছি।

Bootstrap Image Preview