Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৬ বৃহস্পতিবার, জুলাই ২০২০ | ৩১ আষাঢ় ১৪২৭ | ঢাকা, ২৫ °সে

নারায়ণগঞ্জে ভুয়া ডাক্তার আটক, ৬ মাসের কারাদণ্ড

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০৪:২২ PM
আপডেট: ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০৪:২২ PM

bdmorning Image Preview


নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে কদমতলীপুল এলাকায় থেকে এম হোসেন জেনারেল হাসপাতালে রোগী দেখার সময় ফাহমিদা আলম (২৫) নামে এক ভুয়া ডাক্তারকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব।

সিদ্ধিরগঞ্জে কদমতলীপুল এলাকায় থেকে এম হোসেন জেনারেল হাসপাতালে রোগী দেখার সময় ফাহমিদা আলম (২৫) নামে এক ভুয়া ডাক্তারকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। চৌধুরী, পিপিএম যুগান্তরকে জানান, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে আটকের পর ফাহমিদা আলমকে জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়, তিনি দীর্ঘদিন নিজেকে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার পরিচয় দিয়ে ওই হাসপাতালে নিয়মিত রোগী দেখে আসছেন।

তার নামের পাশে ডাক্তারি ডিগ্রি হিসেবে এমবিবিএস, পিজিটি (গাইনি অ্যান্ড অবস), এমসিএইচ (ডিএসএইচ) সিএমইউ, ডিএমইউ মেডিসিন গাইনি ও শিশুরোগ বিষয়ে অভিজ্ঞ ও সনোলজিস্ট হিসেবে প্রেসক্রিপশনে উল্লেখ করে আসছেন।

জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, ম্যাটস থেকে একটি ডিপ্লোমা কোর্স করা ফাহমিদা আলম হাসপাতালে আলট্রাসনোর টেকনিশিয়ান হিসেবে চাকরি নেন। পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগসাজশে বিশেষজ্ঞ ডাক্তার সেজে রোগী দেখা শুরু করেন। এভাবে রোগীদের সঙ্গে সেই দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণা করে আসছেন।

মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আনিসুল ইসলাম।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৫২ ধারায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় তাকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশে এম হোসেন জেনারেল হাসপাতালকে বন্ধ করে দেয়া হয়।

Bootstrap Image Preview