Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২১ বুধবার, অক্টোবার ২০২০ | ৬ কার্তিক ১৪২৭ | ঢাকা, ২৫ °সে

‘গেকো’ প্রজাতির সরীসৃপটি বিক্রি হচ্ছিল তিন লাখ টাকায়

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর ২০১৮, ০৭:২৩ PM
আপডেট: ২৪ নভেম্বর ২০১৮, ০৭:২৩ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত ছবি


পাচারের উদ্দেশ্যে নিয়ে আসা একটি সরীসৃপ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার দুপুরে এ ঘটনায় ভারতের কালিয়াচকের এক যুবককে আটক করা হয়েছে।

ফারাক্কা থানার পুলিশ জানিয়েছে,  আটক  মুহাম্মদ ঈশা শেখ (২৩) কালিয়াচক থানার পশ্চিম খাসচাঁদপুর গ্রামের বাসিন্দা। বন্যপ্রাণীর চোরা কারবারি করেন তিনি। ওই অভিযোগে আগেও পুলিশের হাতে ধরা পড়েছেন। উদ্ধার হওয়া সরীসৃপটির বাজারমূল্য কয়েক লাখ টাকা।  

পুলিশ জানায়, শুক্রবার দুপুরে বিপন্ন ‘গেকো’ প্রজাতির সরীসৃপটি একটি ছোট হাতব্যাগে করে কালিয়াচক থেকে আসা একটি বাসে ফারাক্কায় আসেন ওই যুবক। এনটিপিসি মোড়ে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে বাস থেকে নামেন তিনি। তাকে পথ দেখিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন ফারাক্কারই আরেক যুবক। বাসস্টপ থেকে ফিডার ক্যানেল এলাকার পুরনো ধোসা ঘাটের কাছে এক নির্জন জায়গায় যান তিনি।

সেখানেই সরীসৃপটি নিতে আসার কথা ছিল বিহারের দুই ব্যক্তির। গাড়িতে করে তারা ফারাক্কায় এসেওছিলেন। পুলিশ আগাম খবর পেয়ে ওঁত পেতে বসে ছিল পাশেিই।

কালিয়াচক থেকে আসা যুবককে দেখামাত্র পুলিশ তাকে ঘিরে ফেলে। তল্লাশি করে তার ব্যাগের মধ্যে মেলে সরীসৃপটি। তার পরই ওই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। অবশ্য বাকিরা পালিয়ে গেছে জানিয়েছে পুলিশ।

ফরাক্কা থানার আইসি উদয়শঙ্কর ঘোষ জানান, উদ্ধার হওয়া সরীসৃপটি ১৪ ইঞ্চি লম্বা। রং কালো। ওজন ১৭৫ গ্রাম। আটক যুবক পুলিশকে জানিয়েছে, সরীসৃপটি মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশ হয়ে কালিয়াচকে আনা হয়েছে গত সপ্তাহে। তিন লাখ টাকায় সেটি বিক্রির জন্য আনা হয়েছিল। বিহারের দু’জন ক্রেতা সেটি কিনতে চেয়েছিলেন। তারা সেই দাম মিটিয়ে দিয়েছেন আগেই।

সরীসৃপটিকে তাদের হাতে তুলে দেওয়ার জন্যই ফারাক্কায় আনা হয়েছিল। হাতবদলের খবর আগে থেকেই ছিল পুলিশের কাছে। যদিও প্রাথমিকভাবে পুলিশের কাছে খবর ছিল সরীসৃপটি বিরল প্রজাতির এবং এটির দাম প্রায় ৯ কোটি টাকার কাছাকাছি। কিন্তু পরে বনদপ্তর থেকে জানানো হয় যে সরীসৃপটি বিরল প্রজাতির নয়।

বন দপ্তরের এক স্থানীয় কর্মকর্তাকে ডাকা হয়েছিল। তিনি তাদের দপ্তরে সরীসৃপটির ছবি তুলে পাঠান। আপাতত সেটিকে ফারাক্কা থানায় রাখা হয়েছে। ওই যুবককে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনে গ্রেপ্তার  করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশ জানতে পেরেছে, বিহারের দু’জনের সরীসৃপটিকে চীনে পাচারের পরিকল্পনা ছিল।

তবে রঘুনাথগঞ্জে বন দপ্তরের রেঞ্জার শিবপ্রসাদ সিংহের বক্তব্য, সরীসৃপটি বিরল প্রজাতির নয়। মূল্যবানও নয়। ‘গেকো’ সোনালি রঙের। এদের ওজন কমপক্ষে ৪০০ গ্রাম পর্যন্ত হয়। তিনি বলেন, সরীসৃপটি সহজলভ্য। কেন তা এত চড়া দামে কেনাবেচা হচ্ছিল, সেটা পুলিশই তদন্ত করে বলতে পারবে।

Bootstrap Image Preview