Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১০ শুক্রবার, জুলাই ২০২০ | ২৬ আষাঢ় ১৪২৭ | ঢাকা, ২৫ °সে

বিমানে কেবিন ক্রু সঙ্কট চরমে, জরুরি ভিত্তিতে চলছে নিয়োগ প্রক্রিয়া

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭ নভেম্বর ২০১৮, ১১:৫৯ AM
আপডেট: ০৭ নভেম্বর ২০১৮, ১১:৫৯ AM

bdmorning Image Preview


বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে একের পর এক নতুন উড়োজাহাজ যুক্ত হলেও এসব পরিচালনা করার জন্য নেই পর্যাপ্ত কেবিন ক্রু নেই। বর্তমানে বিমানে প্রায় ২৫০ জন কেবিন ক্রু ঘাটতি রয়েছে। তাই জরুরি ভিত্তিতে ক্রু নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিমান কর্তৃপক্ষ। আগামী মাসে এ সংক্রান্ত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেবে বিমান।

এ বিষয়ে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে জানিয়ে বিমানের কাস্টমার সার্ভিস বিভাগে সম্প্রতি যোগদানকারী পরিচালক মোমিনুল ইসলাম বলেন, বিমানের নিয়োগ শাখা এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলেও কাস্টমার সার্ভিস বিভাগই সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করবে। শুরুতে লিখিত পরীক্ষার মাধ্যমে প্রাথমিক প্রার্থী তাালিকা বাছাই করা হবে। পরবর্তীতে মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা ঠিক করা হবে।

তিনি আরও বলেন, প্রথম পরীক্ষায় চূড়ান্ত বিজয়ীরা ঢাকায় লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেবেন। প্রার্থীদের কমপক্ষে এইচএসসি পাস এবং বয়স ১৮ থেকে ৩০ বছর হতে হবে। উচ্চতা লাগবে ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি, চোখের দৃষ্টি ৬ বাই ৬। এছাড়া শারীরিক গড়ন সুন্দর ও সুদর্শন হতে হবে। সেখান থেকে উত্তীর্ণ প্রার্থীরা লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেবেন।

জানা গেছে, বিমানের বোর্ড মিটিংয়ে পরিচালনা পর্ষদ নিয়োগ প্রস্তাব অনুমোদন করেছেন। প্রস্তাবটি চূড়ান্ত অনুমোদন করেছে বিমান মন্ত্রণালয়। আগামী মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে বিমানের ওয়েবসাইট ও বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করার কথা রয়েছে।

বিমানের ফ্লাইট সার্ভিস বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে যে ৪৫০ জন কেবিন ক্রু রয়েছেন তাদের সবার বয়স ৩৫ বছরের বেশি। কারও কারও বয়স ৫০ বছর পার হয়ে গেছে। আন্তর্জাতিক আইন ও এয়ারলাইন্স নীতিমালা অনুযায়ী সাধারণত ২৫ বছর পার হলেই সংশ্লিষ্ট কেবিন ক্রুরা আর ফ্লাইট করতে পারেন না।

এ অবস্থায় বিমান কর্তৃপক্ষ ফ্লাইট পার্সার ও জুনিয়র পার্সার হিসেবে কয়েকজন কেবিন ক্রুকে পদোন্নতি দিলেও অধিকাংশ এখনও কেবিন ক্রু হিসেবে রয়ে গেছেন। ফলে বড় ধরনের ক্রু ঘাটতিতে আছে বিমান।

এদিকে বিমানের কতিপয় কেবিন ক্রুর বিরুদ্ধে ফ্লাইট নিয়ে বিদেশে গিয়ে নানা অনৈতিক কর্মকাণ্ড, চোরাচালান, চুরি, টাকা পাচার ও অসামাজিক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ার অভিযোগ রয়েছে। এ অবস্থায় তাদেরকে বিদেশে ফ্লাইট দেয়া থেকে বিরত রাখতে হচ্ছে। চোরাচালান ও চুরির অভিযোগে এ পর্যন্ত অর্ধশত কেবিন ক্রুকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। কিন্তু সঙ্কট এতটাই প্রকট, শেষ পর্যন্ত অনেকের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করতে হয়েছে।

Bootstrap Image Preview