Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ০৯ রবিবার, আগষ্ট ২০২০ | ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭ | ঢাকা, ২৫ °সে

তালতলীতে দিনে রাতে সমানতালে চলছে ইলিশ শিকার

খাইরুল ইসলাম আকাশ, বরগুনা প্রতিনিধিঃ
প্রকাশিত: ২১ অক্টোবর ২০১৮, ০৪:২১ PM
আপডেট: ২১ অক্টোবর ২০১৮, ০৪:২২ PM

bdmorning Image Preview


বরগুনার তালতলীর বঙ্গোপসাগরের মোহনায় থামছে না ইলিশ শিকার। দিনে রাতে সমানতালে চলছে এ মৎস্য শিকার। প্রতিদিনই জেলেরা মৎস্য অফিসের টহলরত লোকজনদের চোখ ফাঁকি দিয়ে মা ইলিশ শিকার করছে।

জানা গেছে, বিগত ৭ অক্টোবর গভীর রাত থেকে ইলিশ সম্পদ সংরক্ষণ অভিযান শুরু হয়। এ অভিযান ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে।

সরেজমিনে গিয়ে গতকাল শনিবার দুপুরে এমনি চিত্র দেখা যায় উপজেলার নলবুনিয়া শুভসন্ধা সি বিচের সামনেই বঙ্গোপসাগরের মোহনায়। স্থানীয় জেলে আশ্রাব আলীসহ ৭-৮জন গোপনে মা ইলিশ শিকার করতে দেখা গেছে তাদের। মৎস্য অফিস কর্তৃপক্ষের তৎপরতা উপেক্ষা করে প্রতিনিয়ত দিনে ও রাতে সমানতালে বঙ্গপসাগরের মোহনায় ইলিশ শিকার করছেন জেলেরা।

রাতে মোহনায় জোয়ার আসার সাথে সাথে জেলেরা খুটা দিয়ে গাতা করে কারেন্টজাল ফেলে বসে থাকে। ঘন্টাখানেক অপেক্ষার পরে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নদীতে সাঁতার কেটে জাল তুলে কিনারে ফিরে এসে পাশেই ঝাউবনের বালুর নিচে জাল ও মাছ লুকিয়ে ফেলে। এতে প্রতিদিন সাগরের মোহনা থেকে অনেক মা ইলিশ ধরা পরছে ও ওই মাছ গ্রামে গিয়ে গোপনে বিক্রি করে দেওয়া হচ্ছে। নৌ পুলিশ এবং কোস্টগার্ডের পাশেই নলবুনিয়া শুভসন্ধা সি বিচে চলছে এ মৎস্য শিকার।

অভিযুক্ত আশ্রাব আলী বলেন, আমি অবরোধের ভিতরেও নদীতে জাল পেতেছি এটা আমার ভুল হইছে আর আজকে মাছ কম পাইছি।

তিনি আরও বলেন, এখানে প্রতিনিয়ত অনেক জেলেরা খুটা দিয়ে গাতা করে কারেন্টজাল দিয়ে মাছ ধরেন।
তালতলী উপজেলা সিনিয়র (ভারপ্রাপ্ত) মৎস্য কর্মকর্তা বীরেন্দ্র নাথ বলেন, আমরা প্রতিনিয়ত অভিযান পরিচালনা করি। মাঝে মধ্যে কিছু অসাধু জেলেরা নদীতে জাল পাতে। আর এবিষয় আমার জানা নেই। খোঁজখবর নিয়ে অভিযান পরিচালনা করে এদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে।
 

Bootstrap Image Preview