Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১১ শনিবার, জুলাই ২০২০ | ২৬ আষাঢ় ১৪২৭ | ঢাকা, ২৫ °সে

পতেঙ্গা সৈকতে নেমে আত্মহত্যা করেছিল সেই তাসফিয়া!

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১২:৩২ PM
আপডেট: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০১:২৬ PM

bdmorning Image Preview
ফাইল ছবি


স্কুলছাত্রী তাসফিয়া আমিন হত্যা মামলায় আদালতে চূড়ান্ত তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেছে চট্টগ্রাম মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। ওই প্রতিবেদনে তাসফিয়ার মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

রবিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে চিফ মেট্রোপলিটন আদালতের বিচারক ওসমান গনির আদালতে প্রতিবেদনটি দাখিল করেছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা স্বপন সরকার।

চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার নির্মলেন্দু বিকাশ চক্রবর্তী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ময়নাতদন্ত রিপোর্ট, ভিসেরা রিপোর্ট ও সাক্ষীদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘প্রত্যক্ষদর্শী ৬ জনসহ ১৬ জন সাক্ষীর কাছ থেকে পাওয়া তথ্য ও জবানবন্দি, ময়নাতদন্তের ভিসেরা রিপোর্টের ভিত্তিতে তাসফিয়ার মৃত্যু হয়েছে, পানিতে নেমে আত্মহত্যা করে।’

নগর গোয়েন্দা পুলিশের (বন্দর) সিনিয়র সহকারী কমিশনার আসিফ মহিউদ্দীন বলেন, প্রত্যক্ষদর্শী ৬ জনসহ ১৬ জন সাক্ষীর কাছ থেকে পাওয়া তথ্য ও জবানবন্দি, ময়নাতদন্তের ভিসেরা রিপোর্টের ভিত্তিতে তাসফিয়ার মৃত্যু হয়েছে পানিতে নেমে আত্মহত্যা করেছে বলে আমাদের তদন্তে উঠে এসেছে।

গত ১ মে বিকালে বন্ধুর সঙ্গে বেড়াতে বের হয়ে আর বাসায় ফেরেনি নগরের সানশাইন গ্রামার স্কুলের নবম শ্রেণীর ছাত্রী তাসফিয়া আমিন। পরদিন সকালে পতেঙ্গায় কর্ণফুলী নদীর তীর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় পুলিশ ওইদিন রাতে তাসফিয়ার বন্ধু আদনানকে আটক করে। ঘটনার পরদিন ৩ মে দুপুরে এ ঘটনায় তাসফিয়ার বাবা মোহাম্মদ আমিন থানায় হত্যা মামলা দায়ের করলে ওই মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠায় পুলিশ। মামলার অন্য আসামিরা হলো সোহেল (১৭), শওকত মিরাজ (১৭), আসিফ মিজান (১৭), ইমতিয়াজ ইকরাম (১৭) ও ফিরোজ (৩০)।

Bootstrap Image Preview