Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৭ সোমবার, জানুয়ারী ২০২০ | ১৩ মাঘ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

নাগরিকত্ব বিল নিয়ে ভারতজুড়ে বিক্ষোভ, 'খুশি' তসলিমা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:২১ PM
আপডেট: ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:২১ PM

bdmorning Image Preview


নির্বাসিত বাংলাদেশি লেখিকা তসলিমা নাসরিন ভারতে সদ্য পাস হওয়া নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতি তার সমর্থন জানিয়েছেন। এ বিল পাস হওয়ায় তিনি 'খুশি' বলেও জানিয়েছেন। 

বুধবার ভারতের রাজ্য সভায় এ বিল পাস হয়। এরপর থেকে ভারতজুড়ে চলছে বিক্ষোভ। পুলিশের গুলিতে পাঁচজন নিহত হওয়ার খবরও পাওয়া গেছে।

বিলে বলা হয়েছে- মুসলিম ছাড়া আফগানিস্তান, পাকিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে ধর্মীয় অত্যাচারের কারণে ভারতে শরণার্থী হিসেবে হিন্দু, পার্সি, শিখ, জৈন, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীরা আশ্রয় নিতে বাধ্য হলে তাদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে।

শুক্রবার এক সাক্ষাৎকারে এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে ইন্ডিয়া টুডে টিভিকে তসলিমা নাসরিন বলেন, 'ভারত তার মুসলিম জনগোষ্ঠীকে বহিষ্কার করছে না।'   

তিনি বলেন, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস হওয়াতে আমি খুশি হয়েছেন। 

তসলিমা নাসরিন বলেন, সাধারণত ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠি উগ্রবাদীদের দ্বারা আক্রান্ত হয়। তবে তারচেয়ে বড় হামলার শিকার হন মুক্তচিন্তার লোকেরা, উদারবাদী এবং নাস্তিকরা। ইসলামিক সমাজ আমাদের ঘৃণা করে যখন আমরা তাদের সমালোচনা করি।

তিনি বলেন, আমার মতো নির্বাসনে থাকা লোকদেরও নাগরিকত্ব দেওয়া উচিত। 

৫৭ বছর বয়সী তসলিমা নাসরিন ২০০৪ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গে ছিলেন। সেখানে একটি মুসলিম সংগঠন তাকে ভারত ছাড়ার দাবি জানায়। বর্তমানে তিনি দিল্লিতে অবস্থান করছেন।  

সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, 'আমি আমার দেশকে খুব মিস করি। আমি বাংলায়ও যেতে পারি না'। 

১৯৯০ সালে বাংলাদেশ ছাড়তে বাধ্য হন তসলিমা নাসরিন।

এ ছাড়া তসলিমা নাসরিন তার টুইটারে এ বিলের প্রতি সমর্থন জানিয়ে লেখেন, ''এত আতঙ্কিত হওয়ার কী আছে? ভারত তার বিশাল অংশের নাগরিকদের বহিষ্কার করছে না। এটা (বিল) শুধু অবৈধ অভিবাসীদের জন্য। বর্তমানে ইউরোপও মুসলিম অভিবাসীদের তাদের দেশে আশ্রয় দিতে চায় না। আমরা জানি সেটা কেন। যাই হোক, 'তাজ মহল' নামে একটি ফরাসি সিনেমা আমি দেখেছি গতকাল রাতে যা মুম্বাই হামলা নিয়ে নির্মিত''।

Bootstrap Image Preview