Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৮ মঙ্গলবার, জানুয়ারী ২০২০ | ১৫ মাঘ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

খাট কিনে না দেওয়ায় যা করলেন অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ০১:৩৭ PM
আপডেট: ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, ০১:৩৭ PM

bdmorning Image Preview


খাট কেনা নিয়ে ঝগড়ার সূত্র ধরে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। রাজধানীর মোহাম্মদপুরের কাটাসুরের ২ নম্বর রোডের ৪১ নম্বর বাড়ির ষষ্ঠ তলার একটি ফ্ল্যাট থেকে ওই নারীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত ওই নারীর নাম হাবিবা আক্তার (২০)। তিনি রাজশাহীর শাহমখদুম থানার মধ্য নওদাপাড়ার মো. ইকরাম আলীর মেয়ে। তার স্বামীর নাম মো. আকাশ আলী। তিনি একটি বেসরকারি কোম্পানিতে চাকরি করেন।

আকাশ আলী বলেন, ‘আমার স্ত্রী পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিল। বাসায় খাট কেনা নিয়ে আমার সাথে তার একটু ঝগড়া হচ্ছিল। আমি বলেছি, এখন আমার কাছে টাকা নেই। আগামী মাসে খাট কিনে দেব। এই মাসে একটি ড্রেসিং টেবিল ও একটি আলমারি কিনেছি। শনিবার রাতে এ নিয়ে দুজনের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। পরে দুজনেই রাতে খেয়ে ঘুমিয়ে পড়ি।’

আকাশ আলী আরও বলেন, ‘রবিবার সকালে আমাকে রুটি বানিয়ে দেয় ও। আমি খেয়ে অফিসে চলে যাই। অফিসে ঢোকার সাথে সাথে আমার ফোনে একটি মেসেজ আসে। মেসেজ দেখে আমি ফোন দিই, কিন্তু ও কল রিসিভ করে না। পরে আমি একটি মেসেজ দিই, তাতেও কোনো উত্তর আসে না। আমি আবার কল দিলে ফোন বন্ধ পাই। তখন আমার মনে সন্দেহ হলে দ্রুত বাসায় চলে আসি। এসে কলিংবেল বাজিয়ে ডাকাডাকি করলেও দরজা খুলছিল না। পরে পাশের বাসার সবাইকে নিয়ে দরজা ভেঙে ফেলি। ঢুকে দেখি ড্রয়িং রুমে ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলছে হাবিবা। পরে প্রতিবেশীদের সহযোগিতায় তাকে নামিয়ে সাথে সাথে সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসি। সেখান থেকে তাকে নিকটস্থ হৃদরোগ হাসপাতালে পাঠানো হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক হাবিবাকে মৃত ঘোষণা করেন।’

হাবিবার বড় ভাই ফরিদুর বলেন, ‘বছরখানেক হলো বিয়ে হয়েছে হাবিবার। আমাকে কয়েক দিন ধরে ফোন করছিল বাসায় আসার জন্য। আমি বলেছি, মঙ্গলবার আসব। শুনেছি আমার বোনের সাথে খাট কেনা নিয়ে আকাশের সামান্য ঝগড়া হয়েছে। রবিবার ফোন পেয়ে এসে দেখি আমার বোন আর নেই।’

মোহাম্মদপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মিজানুর ইসলাম বলেন, ‘রবিবার বিকেল ৫টায় আমরা খবর পেয়ে হৃদরোগ হাসপাতাল থেকে লাশের সুরতহাল তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠাই। প্রাথমিকভাবে আমরা জানতে পারি, স্বামীর সাথে খাট কেনা নিয়ে কথা-কাটাকাটি হয় হাবিবা আক্তারের। পরে সে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। ময়নাতদন্ত শেষে সোমবার বিকেলে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।’

Bootstrap Image Preview