Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৩ শুক্রবার, ডিসেম্বার ২০১৯ | ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

প্রথমবারের মতো নেদার‌ল্যান্ডে মাইকে আজান প্রচার

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ০৮:৪০ PM
আপডেট: ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ০৮:৫৭ PM

bdmorning Image Preview


নেদার‌ল্যান্ডের রাজধানী আমস্টারডামে প্রথমবার মাইক বা লাউডস্পিকারের মাধ্যমে আজান প্রচার করে স্থানীয় মুসল্লিদের নামাজের জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে।

শুক্রবার জুমার নামাজ উপলক্ষে এই আজান প্রচার করা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন মসজিদ কর্মকর্তা।

আমস্টারডামের ব্লু মস্ক বা নীল মসজিদ নামে পরিচিত মসজিদটিতে ৮ নভেম্বর প্রথম আজান প্রচার করার পরিকল্পনা করা হয়েছিল। কিন্ত কিছু দুষ্কৃতকারি অডিও সিস্টেমের তার কেটে দেয়ার ফলে এক সপ্তাহ পরে আজান প্রচার করার সময় নির্ধারিত হয়।

স্থানীয় মুসল্লিসহ ভিন্ন ধর্মাবলম্বীরাও মসজিদের বাইরে দাঁড়িয়ে প্রথমবারের মত আজান শোনার অভিজ্ঞতা অর্জন করেন। অনেকেই  আবেগময় এই মুহূর্তটি তাদের সেল ফোনে রেকর্ড করে রাখেন।

মসজিদের মুখপাত্র নুরদীন ওয়াইল্ডম্যান তুরস্কের বার্তা সংস্থা আনাদোলুকে জানান, এক সপ্তাহ আগের জুমায় এই আজান প্রচার করার কথা ছিল। কিন্তু বাধা সত্ত্বেও চলতি সপ্তাহের জুমায় লাউডস্পিকারে আজান প্রচার করতে পেরে তিনি অত্যন্ত সুখী এবং সম্মানিত বোধ করছেন।

তিনি বলেন, স্থানীয়দের কাছ থেকে বিভিন্ন ধরনের প্রতিক্রিয়া পাওয়া যাচ্ছে। অনেকেই বিষয়টির সমালোচনা করছে। তবে বেশিরভাগ প্রতিক্রিয়াই ইতিবাচক। 

উরসুলা ভ্যান স্পর্নসেন নামে ভিন্ন ধর্মাবলম্বী একজন জানান, তিনি স্থানীয় বাসিন্দা। আজান শোনার জন্যই প্রথমবার এই মসজিদে আসেন। এটি শুনতে অনেক ভালো লাগছিল।

প্রসঙ্গত, নেদার‌ল্যান্ডজুড়ে শতকরা ৭ ভাগ মসজিদে বছরের পর বছর ধরে লাউডস্পিকারে আজান প্রচার করা হচ্ছে। কিন্তু রাজধানী আমস্টারডামে এই প্রথম আজান প্রচার করা হয়।

নেদার‌ল্যান্ডের সংবিধানে ধর্মীয় স্বাধীনতার অধিকার দেয়া হয়েছে। ১৯৮০ সালে প্রণীত একটি আইনে সব ধর্মের মানুষকেই তাদের বিশ্বাস অনুযায়ী ধর্মীয় রীতিনীতি পালনের জন্য আহ্বান জানানোর অনুমতি দেয়া হয়েছে।

তবে আইন অনুযায়ী পৌরসভা আজানের শব্দের মাত্রা কমিয়ে প্রচারের ব্যবস্থা করতে পারে কিন্তু কোনভাবেই আজান প্রচার বন্ধ করতে পারে না। নেদার‌ল্যান্ডজুড়ে প্রায় ৫০০টির মত মসজিদ রয়েছে।

Bootstrap Image Preview