Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৬ শনিবার, নভেম্বার ২০১৯ | ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

গাছের সাথে এ কেমন শত্রুতা?

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ১১:২২ AM
আপডেট: ২৩ অক্টোবর ২০১৯, ১১:২২ AM

bdmorning Image Preview


বাড়ির ছাদে ফুলের টবে রাখা গাছগুলোকে কেটে সাফ করে ফেলছেন এক নারী এমন একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। গাছের ওপর ওই নারীর কেন এতো ক্ষোভ বা তিনি কেন পরিবেশের জীবন গাছকে এভাবে কেটে টুকরো টুকরো করছেন? এমন প্রশ্ন ছুড়ছেন নেটিজেনরা।

সাভারের সিআরপি রোডের একটি বাসার ছাদে ধারণ করা ভিডিওতে দেখা গেছে, হিজাব পরা এক নারী ছাদে শখ করে লাগানো অন্যের গাছ কেটে সাবাড় করছেন। প্রতিবাদ করায় যারা গাছ লাগিয়েছেন তাদের ওপর হামলার চেষ্টা করছেন।

গাছের ওপর ওই নারীর কেন এতো ক্ষোভ বা তিনি কেন পরিবেশের জীবন গাছকে এভাবে কেটে টুকরো টুকরো করছেন? এমন প্রশ্ন ছুড়ছেন নেটিজেনরা।

ভিডিওটি পোস্ট করেছেন সুমাইয়া হাবিব নামের এক নারী।

তার পোস্টকৃত ওই ভিডিওতে দেখা গেছে, এক নারী দা হাতে অন্য একজনের তৈরি করা ছাদবাগানের সব গাছ কেটে সাফ করে দিচ্ছেন! এ সময় বাগানটির মালিক তার কাছে এ কাজটি না করতে অনুনয়-বিনয় করছেন। চোখের সামনেই তিলে তিলে গড়া শখের বাগানটি টুকরো টুকরো হতে দেখছেন তিনি। কিন্তু তার আকুতি, মিনতির চুল পরিমাণ অনুভূতিও ওই নারীকে স্পর্শ করছে না। লাগাতার গাছ কেটেই যাচ্ছেন। তাকে থামাতে পারছে না কেউ। কারণ সঙ্গে তার ছেলে একদল সহযোগী নিয়ে ছাদে উঠেছেন।

ওই নারী কেন পরিবেশবান্ধব গাছ কেটে ফেলছেন? সে প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন ভুক্তোভোগী সুমাইয়া হাবীব নিজেই। গাছগুলো ছাদের পরিবেশ নষ্ট করছে বলেই নাকি এগুলো কেটে ফেলেছেন ওই নারী।

ঘটনার বিবৃতি দিয়ে সুমাইয়া হাবিব লিখেছেন, কখনো কি শুনছেন মানুষ গাছ অপছন্দ করে? গাছ পরিবেশ নষ্ট করে? এই নারীর গাছ পছন্দ না। তার বক্তব্য আমাদের গাছ ছাদের পরিবেশ নষ্ট করে ফেলছে। তাই এই নারী আমাদের সব গাছ কেটে ফেলছে। কি অপরাধ ছিল গাছের? কি অপরাধ ছিল? কেউ বলতে পারবেন?

সুমাইয়া আরও লিখেছেন, আমার মা গাছ অনেক পছন্দ করে, তাই ছাদের এক কোণায় আমরা কিছু গাছ লাগিয়েছিলাম। আর এই নারী আমাদের সঙ্গে শত্রুতা করে আমাদের লাগানো গাছগুলো কেটে ফেলল।

এভাবে একজনের লাগানো গাছ কি অন্য কেউ কেটে ফেলতে পারেন? এর জবাবও লিখেছেন সুমাইয়া।

তিনি জানালেন, ওই ভবনে ২টি ফ্ল্যাটের মালিক সুমাইয়া। সবাই যার যার কেনা ফ্লাটে থাকে। ফ্ল্যাটের হিসাব অনুযায়ী ভবনের ছাদেও সবার অধিকার আছে। সেই অধিকার থেকে কিছু গাছ লাগিয়েছেন সুমাইয়া।

তিনি অন্যের জায়গায় গাছ লাগাননি। ছাদের একটি কোণায় এমনভাবে গাছ লাগিয়েছিলেন যা সমস্যার সৃষ্টি তো করবেই না বরং ছাদের শ্রীবৃদ্ধি করবে ও পরিবেশ সুন্দর রাখবে। অথচ উল্টো পরিবেশ নষ্টের দায় দিয়ে গাছগুলো কেটে ফেললেন ওই ভবনের আরেক বাসিন্দা।

সুমাইয়া বলেন, আমরা ভাবতেও পারিনি গাছ মানুষ অপছন্দ করতে পারে। গাছ তো সৌন্দর্য বাড়ায়। আর তারা বলছে, আমাদের গাছ নাকি ছাদের পরিবেশ নষ্ট করে দিয়েছে। তারা অকারণে অন্যায়ভাবে আমাদের জীবন্ত এবং ফলদ গাছগুলো কেটে ফেলল।

সুমাইয়া অভিযোগ করেন, আমাদের পরিবারের ওপর হামলা করতে ওই নারী তার ছেলে কিছু ১০/১২ জন মাস্তান নিয়ে এসেছে। সেজন্য বাঁধা দিয়েও ব্যর্থ হয়েছেন তিনি।

তিনি আপ্লুত স্বরে বলেন, আমাদের একটাই অপরাধ আমরা গাছ ভালোবাসি। আমার মা এই গাছগুলো নিজের সন্তানের মতো যত্ন করেছেন। মানুষ কীভাবে এতটা নিচে নামতে পারে? গাছ তো তাদের কোনো ক্ষতি করে নাই। পুরা ছাদই তো ফাঁকা।

এই মাগরিবের আযানের সময়, ওনার মাথায় সুন্নতি হিজাব কীভাবে পারলো এই ধরন্ত গাছগুলি কেটে ফেলতে। এর হয়তো কোনো বিচার হবে না। তবে আল্লাহর কাছে বিচার দিলাম। আল্লাহই বিচার করবে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন-

Bootstrap Image Preview