Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২২ শুক্রবার, নভেম্বার ২০১৯ | ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

এসপি-ওসি'র অপসারণসহ ৬ দাবি, তিন দিনের লাগাতার কর্মসূচি

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২১ অক্টোবর ২০১৯, ০২:৪৪ PM
আপডেট: ২১ অক্টোবর ২০১৯, ০২:৪৪ PM

bdmorning Image Preview


ভোলার বোরহানউদ্দিনে পুলিশের সাথে সংঘর্ষে চারজন নিহত হওয়ার ঘটনায় আজ সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদের ব্যানারে ভোলা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। সংবাদ সন্মেলন থেকে ভোলার পুলিশ সুপার ও বোরহানউদ্দিন উপজেলার ওসির অপসারণসহ ৬ দফা দাবি করা হয়। 

ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক মাওলানা বশির উদ্দিন বলেন, পরিস্থিতি শান্ত রাখার স্বার্থে সমাবেশ স্থগিত করা হয়েছে। তবে দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত তাদের এই আন্দোলন চলমান থাকবে বলেও জানান তিনি। এ সময় তিনি তিন দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেন। 

কর্মসূচিতে আছে আগামীকাল মঙ্গলবার বিকালে ভোলার ৭টি উপজেলায় বিক্ষোভ কর্মসূচি, বুধবার বেলা ১১টায় জেলা শহরে মানববন্ধন এবং বৃহস্পতিবার বিকালে জেলায় মানববন্ধন। শুক্রবার জুমাবাদ নিহতদের জন্য দোয়া ও মোনাজাত।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদের যুগ্ম সদস্যসচিব মাওলানা মিজানুর রহমান ৬ দফা দাবিগুলো তুলে দরে বলেন, আল্লাহ এবং নবী-রাসুলদের নিয়ে কটূক্তিকারীর বিরুদ্ধে যদি দেশে কঠিন শাস্তির আইন থাকত তাহলে রবিবার বোরহানউদ্দিনে পুলিশের গুলিতে চারজন নিহত হতো না। 

তিনি বলেন, মহানবী (সা.), আল্লাহ ও ইসলামকে ব্যাঙ্গ ও কটূক্তিকারীর বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ শাস্তির আইন করতে হবে। বিপ্লব চন্দ্র শুভ'র সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসি দিতে হবে। সংঘর্ষে নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। আহতদের সরকারি খরচে চিকিৎসা দিতে হবে। এ ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃতদের নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে, কোনো ধরনের মামলায় যেন জড়ানো না হয়। 

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মাওলানা ইয়াকুব আলী চৌধুরী, মাওলানা মো. ইউসুফ, মাওলানা মো. আতাহার আলী, মাওলানা তৈয়বুর রহমান, মাওলানা মহিউদ্দিন, মাওলানা মাহাবুবুর রহমান, সদস্যসচিব মাওলানা তাজুদ্দিন ফারুকী প্রমুখ। 

এদিকে ঘটানাকে কেন্দ্র করে ভোলা সরকারি স্কুল মাঠে সমাবেশের ডাক দেয় সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদের নেতারা। পরে ভোলা জেলা প্রশাষক মোহাম্মদ মাসুদ আলম সিদ্দিকি জানান, মাঠে কোনো সমাবেশ হবে না। তবে জেলা প্রশাষকের দাবির সাথে একাত্ততা প্রকাশ করে সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদের নেতার সমাবেশ প্রতাহার করেন। পরে তারা ভোলা প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করেন। 

ওদিকে, রবিবারের ঘটনায় চার থেকে পাঁচ হাজার জনকে আসামি করে মামলা করেছে বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশ। মামলা নম্বর ১৮। জেলায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে। বিজিবি, পুলিশ, কোস্ট গার্ড, র‌্যাব মোতায়ন রয়েছে।

Bootstrap Image Preview