Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৩ বুধবার, নভেম্বার ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

তুরস্কের বিরুদ্ধে লড়তে কুর্দিদের ‘প্রশিক্ষণ দিয়েছিল’ যুক্তরাষ্ট্র

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০১:২৫ PM
আপডেট: ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০১:২৫ PM

bdmorning Image Preview


উত্তর সিরিয়ায় তুরস্কের সম্ভাব্য অভিযানের বিষয়টি মাথায় রেখে আগে থেকেই যুদ্ধ প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছিল কুর্দি যোদ্ধারা। আর তাদের এ কাজে সহযোগিতা করেছিল যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী।

তুরস্কের চলমান অভিযান এবং কুর্দিদের পাল্টা হামলা নিয়ে ‘ফরেন পলিসি’ ম্যাগাজিনের এক প্রতিবেদনে এমনই ইঙ্গিত মিলেছে।

এতে বলা হয়, টানেল নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে পাল্টা হামলা জোরদার করেছে কুর্দি যোদ্ধারা। সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্স-এসডিএফ যোদ্ধারা লড়াই চালিয়ে যেতে নতুন নতুন যুদ্ধকৌশল ব্যবহার করছে।

এই যোদ্ধাদের সঙ্গী হয়ে যুদ্ধ করেছেন এমন এক মার্কিন সেনা কর্মকর্তা বলেন, গত ২০১৮ সালে তুরস্কের আফরিন অভিযানের পর টানেল নির্মাণের দিকে জোর দেয় কুর্দি যোদ্ধারা। অধিকাংশ টানেল সীমান্তবর্তী শহরগুলো এবং মানবিজ শহরের নিচ দিয়ে গেছে।

তিনি বলেন, তুরস্কের বিমান হামলার বিপরীতে এসডিএফের কোনো প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নেই। তাই লড়াই চালিয়ে যেতে তারা সীমান্তে টানেল নেটওয়ার্ক তৈরি করে।

ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, তুরস্কের অভিযান মোকাবেলায় নিজেদের মধ্যে কীভাবে সমন্বয় রেখে কাজ করা যায় এনিয়ে এসডিএফের সঙ্গে বেশ কয়েকটি মহড়াও সম্পন্ন করে মার্কিন সেনারা। কীভাবে ‘গভীর প্রতিরক্ষা’ হিসেবে এই টানেল নির্মাণ করা যায় মার্কিন সেনারা তাদেরকে সে প্রশিক্ষণও দেয়।

এই কৌশল কাজে লাগিয়ে ইতোমধ্যে তুর্কি নেতৃত্বাধীন বাহিনীর দখল করা রাস আল-আইন শহরসহ বেশকিছু এলাকা পুনরুদ্ধার করেছে এসডিএফ। টানেল নেটওয়ার্ক কাজে লাগিয়ে কুর্দি যোদ্ধাদের পাল্টা হামলায় হতবুদ্ধ হয়ে পড়েন তুর্কি সেনারা। এসব হামলায় তুর্কি নেতৃত্বাধীন বাহিনীর শতাধিক সদস্য নিহত হন।

Bootstrap Image Preview