Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৩ বুধবার, নভেম্বার ২০১৯ | ২৯ কার্তিক ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

আবরার হত্যা মামলায় বিশেষ প্রসিকিউশন টিম গঠনের প্রস্তুতি চলছে: আইনমন্ত্রী

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:৫৫ AM
আপডেট: ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০৯:৫৫ AM

bdmorning Image Preview


বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার অভিযোগপত্র পাওয়ার পর মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির লক্ষ্যে বিশেষ প্রসিকিউশন টিম গঠন করার প্রস্তুতি চলছে- এমন তথ্য জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। একই সঙ্গে তিনি বলেছেন, এ মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত এ বিষয়ে কারও কিছু বলা ঠিক হবে না।

বুধবার সচিবালয়ে আইনমন্ত্রীর দফতরে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আনিসুল হক এসব কথা জানান।

আইনমন্ত্রী বলেন, আবরার ফাহাদ হত্যায় ফৌজদারি মামলার এজাহার দিয়ে শুরু হয়েছে। এরপর তদন্ত শুরু হয়, যা চলমান। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, কিছুদিনের মধ্যেই অভিযোগপত্র দেয়া হবে। অভিযোগপত্র পেলেই আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ নেব। অভিযোগপত্র পাওয়ার পর মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির লক্ষ্যে আইন মন্ত্রণালয় একটি বিশেষ প্রসিকিউশন টিম গঠন করতে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাকে নির্দেশ দিয়েছেন, আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় যে মুহূর্তে অভিযোগপত্র দেয়া হবে, তখন থেকেই মামলাটি দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য যেসব ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন, সেসব ব্যবস্থা যাতে গ্রহণ করা হয়। আমি এ ব্যাপারে ইতিমধ্যে প্রসিকিউশন সার্ভিসকে এ মামলা হ্যান্ডেল করার জন্য তৈরি হওয়ার নির্দেশ দিয়েছি। আপনারা জানেন, আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার তদন্ত শুরু হয়ে গেছে। আসামিরা অনেকেই গ্রেফতার হয়েছে এবং অনেকে হত্যাকাণ্ড বিষয়ে তাদের স্বীকারোক্তিমূলক বক্তব্য দিয়েছে।

আনিসুল হক বলেন, অভিযোগপত্র দেয়া হলেই আদালতের ওপর দায়িত্ব বর্তাবে। এ দায়িত্ব দ্রুত পরিচালনার জন্য আমরা একটা টিম গঠন করেছি। সে হিসেবেই অভিযোগপত্র দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে প্রসিকিউশন টিমকে মামলাটি রিসিভ করার প্রস্তুতি চলছে। এ মামলা পরিচালনার জন্য একটা পৃথক প্রসিকিউশন টিম হবে।

র‌্যাগিং বন্ধে কোন আইন করা হবে কিনা- জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘র‌্যাগিং কথাটার জন্য হয়ত আইন নাই, র‌্যাগিংয়ের মাধ্যমে যদি কোনো অপরাধ করা হয়, যদি থাপ্পড় দেয়া হয়, সেটাও কিন্তু পেনাল কোডে অপরাধ হিসেবে ৩২৩-এ শাস্তিযোগ্য।’ তিনি বলেন, সম্প্রতি র‌্যাগিংয়ের কথাগুলো উঠে এসেছে। যারা র‌্যাগিংয়ের ভিকটিম তাদের উৎসাহিত করবেন তারা যেন নালিশ করে। নালিশ করলে আমাদের যথেষ্ট আইন আছে, যেগুলোর আওতায় র‌্যাগিংয়ের মাধ্যমে যে অপরাধ করা হয়, সেগুলোর বিচার আমরা করব। প্রচলিত আইনেই এ বিচার করা হবে।

তিনি বলেন, আইন আদালতে আসলেই সমাধান হবে, তা নয়- ‘ইন হাউস সিস্টেম বিল্ড’ করতে হবে। সেখানে নালিশ করলে প্রতিকার হবে এবং নালিশ করলে আর র‌্যাগিং হবে না, এরকম কমপ্লেইন সিস্টেম গঠন করতে হবে।

Bootstrap Image Preview