Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৬ বুধবার, অক্টোবার ২০১৯ | ১ কার্তিক ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

অপচয় ও দূষণ রোধে বৃষ্টির পানি ব্যবহারের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০ অক্টোবর ২০১৯, ০২:২৯ PM
আপডেট: ১০ অক্টোবর ২০১৯, ০২:২৯ PM

bdmorning Image Preview


সুপেয় পানির জন্য বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ ও ব্যবহার করতে জোর দিয়ে ভূগর্ভস্থ পানির উপর নির্ভরতা কমাতে আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পানি ব্যবহারে যত্নবান হতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) সকালে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে ওয়াসার দুটি প্রকল্প উদ্বোধন ও একটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের পর এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের একটা অভ্যাস আছে, কল ছেড়ে রেখেই আমরা হয়তো সব ধরনের কাজ শুরু করে দেই। কিন্তু সেটা না করে ঠিক যতটুকু দরকার ততটুকু পানি ব্যবহার করা।’

তিনি বলেন, ‘এক এক লিটার পানি শোধন করতে অনেক টাকা খরচ হয়, কাজেই সে বিষয়টা মাথায় রেখে পানি ব্যবহারে যত্নবান হবেন। এক্ষেত্রে যেটা হবে সেটা হলো পানি ব্যবহারে বিলটাও কম আসবে।’

নদী দূষণ রোধে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে নদী দূষণমুক্ত ও নাব্যতা বজায় রাখাসহ তীরের অবৈধ স্থাপনা অপসারণ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান বঙ্গবন্ধুকন্যা।

সুপেয় পানির গুরুত্ব তুলে ধরে পানির উৎস ও বহমানতা ধরে রাখতে সরকারের নানা পরিকল্পনার কথাও তুলে ধরেন সরকারপ্রধান।

তিনি বলেন, ‘নগরীর সাধারণ মানুষ যাতে নিরাপদ পানি ব্যবহার করতে পারে, সেজন্য সায়েদাবাদ-১ ও সায়েদাবাদ-২ নামে পানি উত্তোলনের দুটি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।’

নদী দূষণ রোধে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে নদী দূষণমুক্ত ও নাব্যতা বজায় রাখাসহ তীরের অবৈধ স্থাপনা অপসারণ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী।

এ সময় জনগণের অর্থে পরিচালিত প্রকল্পগুলোর যথাযথ রক্ষণাবেক্ষণ করতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানিয়ে নগরবাসীর কাছে নিরাপদ পানি পৌঁছে দিতে ওয়াসাকে আরো উদ্যোগী হবার নির্দেশ দেন তিনি।

এর আগে ঢাকা মহানগরীর পরিবেশবান্ধব ও টেকসই পানি সরবরাহ নিশ্চিত করতে পদ্মা পানি শোধনাগার ফেজ-১, সাভার উপজেলার তেতুলঝরা ভাকুর্তা ওয়েলফিল্ড প্ল্যান্ট প্রথম পর্বের উদ্বোধন ও গন্ধর্বপুর পানি শোধনাগার প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী।

লৌহজং উপজেলার পদ্মা যশলদিয়া পানি শোধন প্ল্যান্টের মাধ্যমে প্রতিদিন ৪৫ কোটি লিটার শোধিত পদ্মা নদীর পানি আসবে ঢাকায়।

পদ্মার পানি ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্টে নিয়ে সেখান থেকে পাইপের মাধ্যমে ঢাকায় পাঠানো হবে। ৩ হাজার ৬৭০ কোটি টাকা ব্যয়ে এ প্রকল্প স্থাপন করা হয়েছে।

Bootstrap Image Preview