Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৭ রবিবার, নভেম্বার ২০১৯ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

এক হত্যাকারীর রহস্য উদঘাটনে ১৮ লাখ কর্মকর্তা!

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১০:৪৭ AM
আপডেট: ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১০:৪৭ AM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত ছবি


পৃথিবীতে প্রতিনিয়ত কত ঘটনাই না ঘটছে। এমন অনেক ঘটনা রয়েছে যেগুলোর রহস্য বছরের পর বছর আড়াল থেকে যাচ্ছে, আবার কত ঘটনার রহস্য অনুসন্ধান করতে গিয়ে বছর পেরিয়ে দশকের পর দশক লেগে যাচ্ছে। ঠিক এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে দক্ষিণ কোরিয়ায়। কয়েক দশক পেরিয়ে গেলেও আজও জানা যায়নি রহস্য। তবে আশ্চর্যজনক ঘটনা হলো-এই মামলায় তদন্ত করতে গিয়ে এ পর্যন্ত জড়িয়ে গেছেন দেশটির ১৮ লাখ কর্মকর্তা। 

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, দক্ষিণ কোরিয়ার কুখ্যাত এক সিরিয়াল কিলারের এই রহস্য উদঘাটনে প্রায় তিন দশক ধরে তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে কোরিয়ান পুলিশ।

তবে হত্যাকাণ্ডে অংশ নেওয়া এই অপরাধীর নানা বিষয় নিয়ে তদন্ত করতে গিয়ে এরই মধ্যে সামনে আসতে শুরু করেছে বহু ঘটনা। পুলিশের ধারণা, এবার এর কুলকিনারা করতে পারবেন তারা।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, ১৯৮৬ সাল থেকে ১৯৯১ সাল পর্যন্ত দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউলের পার্শ্ববর্তী এক গ্রামে হত্যাকাণ্ডের শিকার হন ১০ জন নারী।

এসব হত্যাকাণ্ডের তদন্ত করতে এখন পর্যন্ত অংশ নিয়েছেন প্রায় ১৮ লাখ তদন্তকারী কর্মকর্তা। ওইসব হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সিরিয়াল কিলার ৫৬ বছর বয়সী লি চুন জে জড়িত রয়েছেন বলেই ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। নিহত অন্তত তিনজনের ডিএনএ পরীক্ষার পর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

১৯৯৪ সালে শ্যালিকাকে ধর্ষণ এবং হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত এই ব্যক্তি এখন কারাগারে আছেন। হত্যাকাণ্ডের দায় অস্বীকার করেছেন তিনি। এই সিরিয়াল কিলার পুরস্কারপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র ‘মেমোরিস অব মার্ডার’ দেখে তরুণী থেকে ৭০ বছরের বৃদ্ধাকে খুনে উৎসাহ পেতেন বলে জানা গেছে।

কোরিয়ার সংবাদমাধ্যমগুলোতে বলা হয়, শ্বাসরোধে খুন করা হয় ওইসব নারীদের। সিরিয়াল কিলার এমন কৌশল অবলম্বন করতেন সব খুনেই।

ওই ১০ খুনের রহস্য উন্মোচনে প্রায় ২১ হাজার মানুষকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ। আঙুলের ছাপ নেওয়া হয়েছে ২০ হাজার মানুষের।

পুলিশ কর্মকর্তা বান জি সো বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, ‘দীর্ঘসময় ধরে এসব খুনের ঘটনার কোনো সমাধান না হওয়ায় আমরা দুঃখ প্রকাশ করছি। রহস্য উদঘাটনে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

  

Bootstrap Image Preview