Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ০৬ শুক্রবার, ডিসেম্বার ২০১৯ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

রওশন এরশাদকে বহিষ্কারের দাবিতে স্মরণকালের সর্ববৃহৎ ঝাড়ু ও জুতা মিছিল

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৫:৫০ PM
আপডেট: ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৫:৫০ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত


জাতীয় পার্টির দুর্গখ্যাত রংপুর এবং রংপুর বিভাগের নেতাকর্মীরা বিরোধীদলীয় উপনেতা রওশনকে কোনভাবেই দলটির চেয়ারম্যান মানবেন না। এজন্য তারা দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে প্রস্তুত।

শুক্রবার বিকেলে রংপুর মহানগরীতে জাতীয় মহিলা পার্টির নেতৃত্বে স্মরণকালের সর্ববৃহৎ ঝাড়ু ও জুতা মিছিল হয়েছে। এসময় ‘রওশনের দুই গালে ঝাড়ু মারো তালে তালে’ স্লোগান দেয়া হয়।

এদিকে চেয়ারম্যান হিসেবে জিএম কাদেরের পক্ষে থাকার ঘোষণা দিয়ে রংপুর জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টি ঘোষণা দিয়েছেন জীবন দিয়ে হলেও এরশাদের নির্দেশ বাস্তবায়ন করবেন তারা।

শুক্রবার বিকেল চারটায় নগরীর পায়রাচত্বর সেন্ট্রাল রোডের দলীয় কার্যালয় থেকে জেলা ও মহানগর জাতীয় মহিলা পার্টি ঝাড়ু ও জুতা মিছিল বের করে। মিছিলে নেতৃত্ব দেন জেলা সভানেত্রী নাঈম জেসমিন, সেক্রেটারী জোসনা বেগম এবং মহানগর সভানেত্রী জেসমিন বেগম ও সাধারণ সম্পাদক জেসমিন আখতার।

বিক্ষোভ মিছিলটি নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে দলীয় কার্যালয়ে এসে শেষ হয়। মিছিলে রওশন এরশাদ এবং ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দল থেকে বহিষ্কারের দাবি জানানো হয়।

বিক্ষোভে ‘রওশনের দুই গালে, জুতা মারো তালে তালে’, ‘রওশনের দুই গালে, ঝাড়ু মারো তালে তালে’, ‘রংপুরের মাটি জিএম কাদেরের ঘাটি’, ‘রওশনকে বহিষ্কার করো, করতে হবে’, প্রভৃতি স্লোগান দেয়া হয়। মিছিলে কয়েক হাজার নারী অংশ নেয়।

এদিকে দলীয় চেয়ারম্যান হিসেবে জিএম কাদেরের পক্ষে থাকার ঘোষণা দিয়েছে রংপুর জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টি। দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রংপুর জেলা সাধারণ সম্পাদক এসএম ফখর-উজ-জামান জাহাঙ্গীর বলেন, রংপুর জেলা জাতীয় পার্টির প্রতিটি নেতাকর্মী ও সাধারণ জনগণ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হিসেবে জিএম কাদেরের সাথে থাকবে।

সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদ যে নির্দেশনা দিয়ে গেছেন আমরা তা অক্ষরে অক্ষরে যথাযথভাবে পালন করবো এবং মান্য করবো। এরশাদের নির্দেশনা অনুযায়ী যেকোন মূল্যে জিএম কাদেরকে চেয়ারম্যান রাখবো ইনশাল্লাহ। আমাদের এই ঘোষণা বাস্তবায়নের স্বার্থে আমরা যেকোন ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত আছি।

দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য, রংপুর মহানগর সভাপতি ও সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদ জীবদ্দশায় চেয়ারম্যান হিসেবে জি এম কাদেরকে স্থলাভিষিক্ত করে গেছেন। সেটি বিভিন্ন প্রেস ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ায় ফলাও করে প্রচার হয়েছে। সারা বাংলাদেশের সকল মানুষ সেটা জানেন, মানেন।

তিনি আরো বলেন, এরশাদের কর্মী হিসেবে আমরা তার কথা অক্ষরে অক্ষরে পালন করবো। আমরা চেয়ারম্যান হিসেবে রওশনকে মানি না। তিনি যেই হোন না কেন। তিনি যদি এরশাদের বউ হন, ভাই হন, সন্তান হোন, যে কেউ হন না কেন। আমার চেয়ারম্যান হিসেবে এরশাদের নির্দেশনা অনুযায়ী জিএম কাদেরের বাইরের কাউকে মানবো না। জাতীয় পার্টির রংপুর বিভাগের সকল নেতাকর্মী এ ব্যাপারে ঐক্যবদ্ধ।

Bootstrap Image Preview