Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৭ বৃহস্পতিবার, অক্টোবার ২০১৯ | ২ কার্তিক ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

সন্দেহ হলে ব্যক্তিকে ‘টেররিস্ট’ ঘোষণার ক্ষমতা পাচ্ছে ভারতের এনআইএ

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৫ জুন ২০১৯, ১২:৩৩ PM
আপডেট: ২৫ জুন ২০১৯, ১২:৩৩ PM

bdmorning Image Preview


কোনো ব্যক্তি জঙ্গি বা সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত বলে সন্দেহ হলে তাকে ঘোষণা করার ক্ষমতা পাচ্ছে ভারতের জাতীয় তদন্ত সংস্থা।

এই লক্ষ্যে দেশটির বেআইনি কর্মকাণ্ড প্রতিরোধ আইন (ইউএপিএ) ও এনআইএ আইন সংশোধনের প্রস্তাব সোমবার ভারতের মন্ত্রিসভার অনুমোদন পেয়েছে বলে খবর দিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলো।   

আনন্দবাজার লিখেছে, এতদিন কেবল কোনো গোষ্ঠী বা সংগঠনকে ‘সন্ত্রাসবাদী’ ঘোষণা করার এখতিয়ার ছিল এনআইএ-এর হাতে। 

নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রিসভা ইউএপিএ আইনের একটি ধারা সংশোধনের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে, যার ফলে এনআইএ সংগঠনের পাশাপাশি সন্দেহভাজন ব্যক্তিকেও ‘টেররিস্ট’ ঘোষণা করতে পারবে।

অনলাইন পোর্টাল ফার্স্টপোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউএপিএ আইনের সংশোধনী ভারতীয় পার্লামেন্টে পাস হলে সাইবার অপরাধ ও মানব পাচারের অভিযোগও তদন্ত করতে পারবে এনআইএ।

২০০৯ সালে মুম্বাইয়ে ভয়াবহ জঙ্গি হামলায় ১৬৬ জন নিহত হওয়ার পর এনআইএ গঠন করা হয়।

বর্তমান সময়ের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় এ সংস্থার ক্ষমতা বাড়ানো প্রয়োজন- এই যুক্তিতে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ২০১৭ সালে আইন সংশোধনের প্রস্তাব নিয়ে কাজ শুরু করে।  

আনন্দবাজার লিখেছে, “অনেকের মতে, যারা মাওবাদীদের পরোক্ষে সমর্থন করে থাকেন, তাদের কথা ভেবেই ওই আইন বদলাতে চলেছে সরকার। বিরোধীদের আশঙ্কা, রাষ্ট্রের যদি মনে হয় কেউ সরকার বিরোধিতায় মুখ খুলছেন, তাকেও তার মানে সন্ত্রাসবাদী হিসেবে ঘোষণা করা যাবে।”

তবে এমন অভিযোগের বিষয়ে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বক্তব্য দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলো জানাতে পারেনি।

Bootstrap Image Preview