Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২১ শুক্রবার, জুন ২০১৯ | ৬ আষাঢ় ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

মালয়েশিয়ায় ৭ হাজার ৯'শ অভিযানে ৫২৭২ বাংলাদেশী শ্রমিক গ্রেফতার

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ জুন ২০১৯, ০১:২৫ PM
আপডেট: ১২ জুন ২০১৯, ০১:২৫ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত


গত ৫ মাসে মালয়েশিয়ায় ৭ হাজার ৯শ’টি অভিযানে ৫ হাজার ২৭২ জন বাংলাদেশী শ্রমিককে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদেরকে অবৈধ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। একই সময় বৈধ কাগজপত্র না থাকার অভিযোগে ২৩ হাজার ২৯৫ জন বিদেশী শ্রমিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন জানিয়েছেন, পহেলা জানুয়ারি থেকে ৪ঠা জুন পর্যন্ত ৭ হাজার ৯শ’টি অভিযান চালানো হয়। এ সময় প্রায় ১ লাখ শ্রমিকের বৈধতা পরীক্ষা করা হয়। বাংলাদেশ ছাড়া ইন্দোনেশিয়া, মিয়ানমার, ফিলিপাইন ও থাইল্যান্ডের শ্রমিক রয়েছেন।

মালয়েশিয়ার অভিবাসন দপ্তর জানিয়েছে, ২০১৯ সালের ১লা জানুয়ারি থেকে পহেলা জুন পর্যন্ত ২৬ হাজার ১১৬ জন শ্রমিককে স্ব স্ব দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে কতজন বাংলাদেশী রয়েছেন তা জানা যায়নি। মালয়েশিয়ায় প্রায় ৮ লাখ শ্রমিক বর্তমানে কর্মরত রয়েছেন। তার মধ্যে ১ থেকে ২ লাখ শ্রমিক অবৈধ বলে মনে করা হয়ে থাকে।

বাংলাদেশ অবশ্য বারবারই এই শ্রমিকদেরকে বৈধ করার জন্য মালয়েশিয়ার কাছে আহ্বান জানিয়ে আসছে। মালয়েশিয়া এতে সাড়া দেয়নি। অভিবাসন সংগঠনগুলোর মতে, মালয়েশিয়ান এজেন্টদের প্রতারণা ও নিয়োগকারীদের নির্যাতনের ফলে শ্রমিকরা সেখানে অবৈধ হয়ে পড়েন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মুহিউদ্দিন ইয়াসিন এক বিবৃতিতে বলেছেন, তার মন্ত্রণালয় ব্যাপক ও সামগ্রিক একটি পরিকল্পনা তৈরি করছে। এর আওতায় কাগজপত্রহীন বিদেশী অভিবাসীদের খেদাও অভিযান জারি রাখা হবে। এই পরিকল্পনা ৫ বছরে বাস্তবায়ন করা হবে।

অবৈধ শ্রমিকদের কাজ দেয়ার জন্য ৬০৫ জন বিনিয়োগকারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। প্রতি শ্রমিকের জন্য তাদেরকে ১০ হাজার থেকে ৫০ হাজার রিঙ্গিত জরিমানা করা হয়েছে। কোন কোন ক্ষেত্রে এই অপরাধে এক বছরের জেল কিংবা উভয় দন্ডে দন্ডিত করার বিধানও রয়েছে।

Bootstrap Image Preview