Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৩ সোমবার, সেপ্টেম্বার ২০১৯ | ৮ আশ্বিন ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

একাই দুটি পদ নিয়ে অফিসকেই বাড়ি-ঘর বানিয়েছেন রিজভী

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১ জুন ২০১৯, ০৮:০৩ PM
আপডেট: ১১ জুন ২০১৯, ০৮:০৩ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত


বয়সসীমা ছাড়ায় ধারাবাহিক কমিটির দাবিতে আন্দোলন করছে ছাত্রদলের বিগত কমিটির নেতাকর্মীরা। মঙ্গলবার সকাল সোয়া ১১ টায় রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এ আন্দোলন শুরু করেন সাবেক ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। এসময় তারা রাজধানীর নয়াপল্টন বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের মূল ফটকে তালা ঝুলিয়ে দেন।

এ সময় নেতাকর্মীদের শান্ত করতে বেলা ১১ টা ২০ মিনিটে কার্যালয়ের সামনে আসেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুর হক মিলন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী এবং প্রশিক্ষণ বিষয় সম্পাদক এবিএম মোশারফ হোসেন।

এ সময় বিএনপির এই ৪ নেতা কার্যালয়ে প্রবেশ করতে চাইলে তাদেরকে বাধা দেন সাবেক ছাত্রনেতারা। এসময় তাদের সঙ্গে ছাত্রনেতাদের কমিটির বিষয়ে তর্ক-বিতর্ক হয়। বিএনপির এই চার নেতাকে ছাত্রনেতারা বলেন, বয়সসীমা না করে ছাত্রদলের ধারাবাহিক কমিটি দিতে হবে। আর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী একাই দুটি পদ নিয়ে অফিসকেই বাড়ি-ঘর বানিয়েছেন। রিজভীকে এখান থেকে বের করে নিয়ে যান।

সেখান থেকে দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে গুলশানে বৈঠক করতে যান ছাত্রদলের সাবেক এই নেতারা। আর ছাত্রদলের নেতাকর্মীর কেন্দ্রীয় কার্যাপলয়ের সামনে অনশনে বসেন। অনশন থেকে ‌‘রিজভীর দুই গালে জুতা মারো তালে তালে’, আওয়ামী লীগের দালালে হুঁশিয়ার সাবধানসহ বিভিন্ন স্লোগানে কেন্দ্রীয় কার্যানলয়ে প্রাঙ্গণ মুখরিত করে তুলেন তারা।

এদিকে গত ৩ জুন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ছাত্রদলের মেয়াদোত্তীর্ণ কেন্দ্রীয় কমিটি বাতিল করা হয়। এতে বলা হয়, আগামী ৪৫ দিনের মধ্যে কাউন্সিলদের মতামতের ভিত্তিতে সংগঠনটির নতুন কেন্দ্রীয় সংসদ গঠন করা হবে।

ছাত্রদলের অনুষ্ঠিতব্য কাউন্সিলে প্রার্থী হওয়ার যোগ্যতার বিষয়ে বিজ্ঞপ্ততিতে জানানো হয়, ছাত্রদলের প্রাথমিক সদস্য হতে হবে। অবশ্যই বাংলাদেশে অবস্থিত কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র হতে হবে। কেবল ২০০০ সাল থেকে পরবর্তীতে যে কোনো বছরে এসএসসি অথবা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।

এদিকে সংগঠনটির নেতারা বলছেন, ছাত্রদলের অভিভাবক হিসেবে কমিটি বিলুপ্ত করার এখতিয়ার কেবল ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান অথবা দলের সাংগঠনিক প্রধান হিসিবে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের। কিন্তু তাদের দুইজনের স্বাক্ষর এবং সম্মতির বিষয়টি উল্লেখ করা ছাড়াই মধ্যরাতে নিজের স্বাক্ষরে প্রেস রিলিজ পাঠিয়ে কমিটি বিলুপ্তি করেছেন রুহুল কবির রিজভী যা বিধিসম্মত নয়।

অন্যদিকে বয়সসীমা বেঁধে না দিয়ে শিক্ষাবর্ষ বেঁধে দেওয়ার বিষয়টিতে ঘোর আপত্তি ছাত্রদলের বিলুপ্ত কমিটির নেতাদের। তারা বলছেন, ১৯৯৯ সালে পাস করা ছাত্রের বয়স অনেক সময় ২০০১ সালে পাস করা ছাত্রের বয়সের চেয়ে কম। সুতরাং বয়সসীমা না বেঁধে শিক্ষাবর্ষ বেঁধে দেওয়ায় আগের কমিটির অনেকেই প্রার্থী হওয়ার সুযোগে থেকে বঞ্চিত হবেন।

আজ মঙ্গলবার সকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের মূল ফটকে তালা ঝুলানোর পর দলটির কেন্দ্রীয় নেতারা সেখানে উপস্থিত হলে তাদের উদ্দেশ্যে ছাত্রনেতারা এসব কথা বলেন।

সংগঠনটির সাবেক নেতাকর্মীদের অভিযোগ, ছাত্রদল কমিটি গঠনে বয়সের কোন সীমারেখা নির্ধারণ না করে স্বল্পমেয়াদে আগামী ১ জানুয়ারি পর্যন্ত একটি কমিটি গঠন এবং পরের কমিটিকেও এক বছরের স্বল্পমেয়াদে গঠন করে ছাত্রদলের নেতৃত্বের জট কমানোর দাবি করেছেন। কিন্তু বিএনপির শীর্ষ নেতারা তাদের সেই দাবিকে অগ্রাহ্য করে নানান শর্ত জুড়ে দিয়েছেন। সিন্ডিকেটের পছন্দের নেতাকে সামনে আনার জন্য তারা এ ধরণের শর্ত দিয়েছেন বলেও অভিযোগ ছাত্রনেতাদের।

Bootstrap Image Preview