Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৭ বৃহস্পতিবার, জুন ২০১৯ | ১৩ আষাঢ় ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

হিযবুত তাহরীর সাথে যুক্ত ইংরেজি মিডিয়ামের শিক্ষক আটক

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৪ মে ২০১৯, ০২:৩০ PM
আপডেট: ২৪ মে ২০১৯, ০২:৩০ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত


নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহ্রীর বাংলাদেশের ঢাকা মহানগরের (পূর্ব শাখা) দাওয়াহ্ বিভাগের প্রধান ও মিডিয়া শাখার অন্যতম সদস্য জাহিদুল ইসলাম ওরফে জাহিদ (৩৭)কে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে আটক করেছে পুলিশের এন্টি টেররিজম ইউনিট (এটিইউ)।

বৃহস্পতিবার উত্তর যাত্রাবাড়ীর বিবির বাগিচার ১নম্বর গেইট থেকে তাকে আটক করা হয়েছে। তার কাছ থেকে বিপুল পরিমান সরকার বিরোধী লিফলেট, পোস্টার, ল্যাপটপ, ৪টি মোবাইল ফোন, প্রচুর সংখ্যক উগ্রপন্থি বই-পুস্তক উদ্ধারের জব্দ করা হয়েছে।

বর্তমানে তিনি একটি ইংরেজি মিডিয়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতার পাশাপাশি নিষিদ্ধ ঘোষিত হিযবুত তাহরীর মিডিয়া শাখার হয়ে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় দায়িত্ব পালন করে আসছিল।

শুক্রবার এটিইউ’র পুলিশ সুপার (লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া) মো. মাহিদুজ্জামান জানান, এর আগে দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জের শুভাড্যা এলাকা থেকে গ্রেফতার হওয়া হিযবুত তাহ্রীর সক্রিয় সদস্য এবং আইটি বিশেষজ্ঞ রিয়াজ উদ্দীন সিপাইয়ের ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিতে জাহিদের বিষয়ে জানা যায়। ওই তথ্যের ভিত্তিতে নিজস্ব গোয়েন্দা নজরদারী ও তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় জাহিদকে আটক করা হয়। জাহিদ দেশে ইসলামী শরিয়াহ্তিভিত্তিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষকে দাওয়াতী কার্যক্রমের মাধ্যমে উদ্বুদ্ধ করে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির অপচেষ্টা ও সরকার বিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিল।

মাহিদুজ্জামান জানান, আটক জাহিদ ২০০৫ সালে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের যন্ত্রকৌশল বিভাগ থেকে অনার্স পাশ করে। জাহিদ ২০০৯ সালে মাস্টারমাইন্ড ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলের উত্তরা ও ধানমন্ডি শাখায় এবং ২০১৪ থেকে ২০১৫ সালে ম্যাপল লীফ ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে শিক্ষকতা করেছে। বর্তমানে যাত্রাবাড়ীতে অবস্থিত আলফ্রেড ইংলিশ মিডিয়াম স্কুল এন্ড কলেজে কর্মরত আছে। বুয়েটে অধ্যায়নকালে ২০০৫ সালে হিযবুত তাহরীরের সঙ্গে সাংগঠনিকভাবে যুক্ত হয়।

পরে প্রকাশ্যে এবং ২০০৯ সালের ১৫ অক্টোর হিযবুত তাহরীর নিষিদ্ধ ঘোষিত হবার পর গোপনে দাওয়াত ও সদস্য সংগ্রহ অব্যাহত রাখে। গত ১৫ বছর ধরে জাহিদ রাজধানীর নানা এলাকায় হিযবুত তাহরীর দাওয়াতি কার্যক্রম চালাচ্ছিল। বর্তমান সরকারকে অপসারণ করে বাংলাদেশে খিলাফায়ে রাশেদীন প্রতিষ্ঠার জন্য জাহিদ বিভিন্ন জায়গায় হিযবুত তাহরীর সদস্যদের নিয়ে নিয়মিত গোপনীয় বৈঠক করত। জাহিদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস বিরোধী আইনে মামলা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।

Bootstrap Image Preview