Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৮ রবিবার, আগষ্ট ২০১৯ | ২ ভাদ্র ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

ফখরুলকে ছাড়াই শপথ নিবেন বিএনপির আরও চার নেতা!

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৫ এপ্রিল ২০১৯, ১০:২১ PM
আপডেট: ২৫ এপ্রিল ২০১৯, ১০:২১ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত


‘দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাড়া বাকি চারজন সদস্য শপথ নিতে পারেন। দেখি তারা আসে কিনা, এলে একসঙ্গে যোগ দেব।’ ঠাকুরগাঁও-৩ আসন থেকে নির্বাচিত বিএনপি নেতা জাহিদুর রহমান জাহিদ শপথ গ্রহণের পর সংসদ অধিবেশনে যোগ না দিয়ে এসব কথা বলেন।

আজ বৃহস্পতিবার স্পিকার শিরিন শারমিন চৌধুরীর কাছ থেকে শপথ গ্রহণ করেছেন বিএনপি নেতা জাহিদুর রহমান জাহিদ।

দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে ঠাকুরগাঁও-৩ আসন থেকে ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচিত জাহিদুর রহমান শপথ নেওয়াকে গর্হিত অপরাধ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এছাড়া জাহিদুরের বিরুদ্ধে অবশ্যই সাংগঠনিক ব্যবস্থা দল নেওয়া হবে জানান তিনি।

বিএনপির জ্যেষ্ঠ এই নেতা বলেন, ‘সে (জাহিদ) দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গ করেছে। সে তো নির্বাচিত হয়েছে বিএনপি থেকে ধানের শীষ নিয়ে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘দলের সিদ্ধান্তের বাইরে শপথ নেওয়া মানে দলের সাথে কিছুটা প্রতারণা করেছে, এটা গর্হিত অপরাধ। দল এ ব্যাপারে অবশ্যই সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত নেবে।’

ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত অন্য চারজন সম্পর্কে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘কেউ যাতে শপথ না নেয় সেটা দলীয় কার্যালয়ে তাদের ডেকে দলের সিদ্ধান্ত অফিসিয়ালি জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। ওই চারজন সবাই দলের সিদ্ধান্ত জানেন।’

গুঞ্জন রয়েছে, আগামী রবি-সোমবারের মধ্যে বিএনপির আরও কয়েকজন সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেবেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসন থেকে নির্বাচিত বিএনপি নেতা আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘আমাদের দলীয় সিদ্ধান্ত আমরা শপথ নেব না, সংসদে যাব না।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসন থেকে নির্বাচিত উকিল আব্দুস সাত্তার বলেছেন, ‘আমরাও অপেক্ষায় রয়েছি দলীয় সিদ্ধান্তের। এখনও দল থেকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানো হয়নি।’

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসন থেকে নির্বাচিত হারুনুর রশীদ এবং বগুরা-৪ আসন থেকে নির্বাচিত মোশাররফ হোসেনের মোবাইলে একাধিকবার কল করা হলেও তারা ফোন রিসিভ করেননি।

অপরদিকে দলকে উপেক্ষা করে শপথ নেওয়ায় জাহিদকে গণদুষমন বলেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

প্রসঙ্গত, ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ৮ জনপ্রতিনিধি জয়ী হন। ভোট ডাকাতির অভিযোগ তুলে ঐক্যফ্রন্ট এই নির্বাচনে ফল বর্জন করে। সেই সঙ্গে ঐক্যফ্রন্টের কোনো প্রতিনিধি সংসদে শপথ না নেয়ার সিদ্ধান্ত হয়। এই সিদ্ধান্ত না মেনে আজ শপথ নিলেন বিএনপির জাহিদ। এর আগে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে নির্বাচিত দুই নেতা সুলতান মনসুর ও মোকাব্বির খান শপথ নিয়েছিলেন।

Bootstrap Image Preview