Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৫ রবিবার, ডিসেম্বার ২০১৯ | ১ পৌষ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

প্রায় ছয় দশক পর সেমিফাইনালে টটেনহ্যাম

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৩০ AM
আপডেট: ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ১০:৩০ AM

bdmorning Image Preview


ঘটনার ঘনঘটা। ওঠা-নামা। নাটকীয়তায় মোড়া। সবকিছুর সাক্ষী থাকলেন ম্যাঞ্চেস্টার সিটি ও টটেনহ্যাম ম্যাচের দর্শকরা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে কোয়ার্টার ফাইনালের দ্বিতীয় লেগে ম্যান সিটি হাড্ডাহাড্ডি ম্যাচে ৪-৩ ব্যবধানে টটেনহ্যামকে হারাল ঠিকই, কিন্তু যেতে পারল না সেমিফাইনালে। কারণ প্রথম লেগে অ্যাওয়ে ম্যাচে ০-১ হেরেছিল ম্যান সিটি। সব মিলিয়ে ফল ৪-৪, তবে অ্যাওয়ে গোলের ভিত্তিতে শেষ চারে চলে গেল টটেনহ্যাম।

খেলা শুরুর পর থেকেই টানটান উত্তেজনা। ২১ মিনিটের মধ্যে পাঁচ-পাঁচটি গোল!‌ ৪ মিনিটেই সিটিকে এগিয়ে দেন রাহিম স্টার্লিং, যদিও মিনিট তিনেক পরেই গোল শোধ সন হিউং-মিনের। ১০ মিনিটের মাথায় তাঁর দ্বিতীয় গোলে এগিয়ে যায় টটেনহ্যাম। পরের মিনিটেই সিটির হয়ে সমতা ফেরান বার্নার্ডো সিলভা। ২১ মিনিটে সিটি এগিয়ে যায় ফের স্টার্লিংয়ের করা গোলে। ৫৯ মিনিটে সের্জিও আগুয়েরোর গোলে সিটি এগোয় ৪-২। ইতিহাদে ঘরের মাঠে সিটির সমর্থকরা যখন একরাশ আশা নিয়ে বুক বাঁধছিলেন, তখনই ধাক্কা। ৭৩ মিনিটে কর্নার থেকে ফার্নান্ডো লোরেন্তের গোলে ব্যবধান কমায় টটেনহ্যাম।

তবে এই গোল নিয়ে ব্যাপক বিতর্ক রয়েছে। বল লোরেন্তের কনুইয়ে লেগে গোলে ঢুকেছে, অভিযোগ জানাতে থাকেন সিটির ফুটবলাররা। '‌ভার'-এর শরণাপন্ন হন রেফারি‌। দীর্ঘ সময় পরীক্ষা করে তিনি গোলের নির্দেশই দেন। খেলার একেবারে শেষ মুহূর্তে, ইনজুরি সময়ে মন খারাপের গ্যালারি, সিটির রিজার্ভ বেঞ্চকে উত্তাল করে দিয়েছিলেন সেই স্টার্লিং। কিন্তু তাঁর গোল বাতিল হয় সেই '‌ভার'-এর সিদ্ধান্তে, অফসাইডের জন্য। মুহূর্তের উল্লাস স্তব্ধ হয়ে যায়, হতাশার আকাশ ভেঙে পড়ে সিটি সমর্থকদের মাথায়। ৩-৪ হেরেও মরিসিও পোচেত্তিনোর টটেনহ্যাম পা রাখল চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালে, ৫৭ বছর পর। শেষ চারে তাদের প্রতিপক্ষ আয়াক্স।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে ছিটকে যাওয়ার পর কী বলেছেন ম্যান সিটি কোচ গুয়ারদিওলা?‌ তাঁর কথায়, '‌এই ফল মেনে নেওয়া কঠিন। নিষ্ঠুর। কিন্তু আমাদের মানতেই হবে। প্রিমিয়ার লিগেও আমরা লড়াই করছি। কঠিন লড়াই। কিন্তু সেই লড়াই আমাদের জিততেই হবে। প্লেয়ারদের নিয়ে আমি গর্বিত।'‌ আগামী শনিবার ইতিহাদ স্টেডিয়ামেই আবার মুখোমুখি হবে ম্যান সিটি ও টটেনহ্যাম, প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে। সেই ম্যাচে পয়েন্ট নষ্ট করা মানে প্রিমিয়ার লিগের খেতাবি লড়াই থেকেও পিছিয়ে পড়া। যা নিয়ে প্রশ্নের উত্তরে গুয়ারদিওলা বলেছেন, '‌এইমুহূর্তে খুব বেশি ভাবতে চাই না। ঘুমোতে চাই যতটা সম্ভব। তার পর ওই ম্যাচের প্রস্তুতি নেওয়া যাবে।'‌ আর সেমিফাইনালে যাওয়ার আনন্দে পোচেত্তিনো বলেছেন, '‌আমি খুব খুশি। প্রচণ্ড গর্বিত। (‌চ্যাম্পিয়ন্স লিগের)‌ সেমিফাইনালে যাওয়াটা স্বপ্ন। কিন্তু আমরা পৌঁছেছি সেখানেই। আমার প্লেয়াররা হিরো।'‌

Bootstrap Image Preview