Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৫ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২০১৯ | ১২ বৈশাখ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে রাসিকের অভিযান শুরু

আমানুল্লাহ আমান, রাজশাহী প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ১৫ এপ্রিল ২০১৯, ০৯:৪০ PM
আপডেট: ১৫ এপ্রিল ২০১৯, ০৯:৪০ PM

bdmorning Image Preview


জনদুর্ভোগ দূর করতে ফুটপাত ও রাস্তার পাশে অবৈধ স্থাপনা ও দোকান উচ্ছেদ অভিযান শুরু করেছে রাজশাহী সিটি করপোরেশন।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) সকালে মহানগরীর মাস্টারপাড়া কালিমন্দিরের সামনে থেকে এ অভিযান শুরু হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন সিটি করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমর কুমার পাল।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমর কুমার পাল বলেন, মাননীয় মেয়র পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন, সুন্দর ও বাসযোগ্য মহানগরী গড়তে বদ্ধপরিকর। তিনি দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই ফুটপাত দখলমুক্ত ও অবৈধ স্থাপনা সরাতে দখলকারীদের নিজে বুঝিয়েছেন, আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, জনদুর্ভোগ নিরসনে ফুটপাত ও রাস্তার পাশে অবৈধ স্থাপনা ও দোকান উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়েছে। অভিযান ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে। অবশ্য অভিযানের আগে ইতোপূর্বে সবাইকে সর্তক করা হয়েছে, মাইকিং করা হয়েছে, পত্রিকায় সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়েছে। বারবার সর্তক করার পরও দখলকারীরা অবৈধ স্থাপনা সরাননি। তাই জনগণের বৃহৎ স্বার্থে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হচ্ছে। আশা করছি সিটি করপোরেশনের নাগরিকবৃন্দ আমাদের সার্বিক সহযোগিতা করবেন।

জানা গেছে, আজ সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় মহানগরীর মাস্টারপাড়া কালিমন্দিরের সামনে অভিযানে নামেন সিটি করপোরেশনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমর কুমার পাল। অবৈধ দোকানমালিকদের মালামাল সরানোর জন্য এক ঘণ্টা সময় দেন তিনি। দোকানীরা মালামাল সরিয়ে নেওয়ার পর শুরু হয় উচ্ছেদ অভিযান।

এ দিন মহানগরীর মাস্টারপাড়া কালিমন্দির থেকে শুরু হয়ে পদ্মাপাড় হয়ে দরগা পর্যন্ত প্রথমদিন উচ্ছেদ পরিচালিত হয়।

এর আগে গত ৯ এপ্রিল রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের বিশেষ সভায় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অভিযান শুরু হয়েছে।

অন্যদিকে, প্রতিদিন সকাল থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত ফুটপাত বা রাস্তার ধারে দোকান বসাতে পারবে না ব্যবসায়ীরা। ফুটপাত ও রাস্তার পাশের ব্যবসায়ীরা বিকেল চারটা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ব্যবসা করতে পারবে। তবে কোন ব্যবসায়ী ফুটপাত বা রাস্তায় স্থায়ীভাবে ব্যবসার মালামাল/ সরঞ্জাম রাখতে পারবে না।

বিকেল চারটায় মালামাল এনে দোকান বসিয়ে রাত ১০টা পর্যন্ত ব্যবসা করতে পারবে। এরপর রাত ১০টায় দোকান সরিয়ে নিয়ে যেতে হবে।

উল্লেখ্য, অভিযানের দ্বিতীয় দিন ১৬ এপ্রিল টিকাপাড়া হতে অর্কিড ছাত্রাবাস, কল্পনা হল হতে ঢাকা বাস টার্মিনাল পর্যন্ত, তৃতীয় দিন ১৭ এপ্রিল ঝাউতলা মোড় হতে লক্ষ্মীপুর কাঁচাবাজার হয়ে লক্ষ্মীপুর মোড় হয়ে ঘোষপাড়া মোড় পর্যন্ত, চতুর্থ দিন ১৮ এপ্রিল আলুপট্টি থেকে সাহেব বাজার হয়ে ফায়ার সার্ভিস পর্যন্ত, পঞ্চম দিন ১৯ এপ্রিল শহীদ কামারুজ্জামান চত্বর থেকে আম চত্বর পর্যন্ত, রাজশাহী জেলা মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়াম সংলগ্ন ১৯ নং ওয়ার্ড রোড পর্যন্ত, ৬ষ্ঠ দিন ২০ এপ্রিল বন্ধগেট থেকে সিটি হাট পর্যন্ত, সপ্তম দিন ২১ এপ্রিল কাশিয়াডাঙ্গা হতে কাঠালবাড়িয়া হয়ে আইটি ভিলেজ হয়ে কোর্ট চত্বর পর্যন্ত, অষ্টম দিন ২২ এপ্রিল শহীদ কামারুজ্জামান চত্তর হতে স্মৃতি অম্লান (ভদ্রা মোড়) হয়ে চৌদ্দপাই পর্যন্ত, ৯ম দিন ২৩ এপ্রিল ফায়ার
সার্ভিস মোড় থেকে সিএন্ড মোড় হয়ে কোর্ট চত্বর পর্যন্ত, ১০ম দিন ২৪ এপ্রিল বহরমপুর রেলক্রসিং হতে বাইপাস মোড় হয়ে কাশিয়াডাঙ্গা পর্যন্ত, ১১তম দিন ২৫ এপ্রিল ভেড়িপাড়া হতে টি-বাঁধ হয়ে সার্কিট হাউজ হয়ে দরগা গেট পর্যন্ত উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হবে।

Bootstrap Image Preview