Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৭ রবিবার, নভেম্বার ২০১৯ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

‘সোহেলের পরিবারে উপযুক্ত কেউ থাকলে চাকরি পাবে’

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯ এপ্রিল ২০১৯, ০১:৪৩ PM
আপডেট: ০৯ এপ্রিল ২০১৯, ০১:৪৩ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত ছবি


রাজধানীর বনানীতে অগ্নিকাণ্ডে আহত হওয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যাওয়া ফায়ারম্যান সোহেল রানার পরিবারের উপযুক্ত কেউ থাকলে তাকে চাকরি দেয়ার ব্যবস্থা করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামাম খান কামাল। 

মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদর দফতরে সোহেল রানার প্রথম জানাজা শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, সোহেল পরিবারের একজন উপার্জনক্ষম ব্যক্তি ছিলো। ফায়ার সার্ভিসসহ আমরা সবাই তার পরিবারের প্রতি লক্ষ্য রাখব। তার পরিবারে যদি উপযুক্ত কেউ থাকে তাকে একটি চাকরি দেয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

সাহসী সোহেল রানার প্রসংশা করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সোহেল রানা জনগণকে ভালোবাসতো, দেশকে ভালোবাসতো, তারই প্রমাণ তিনি রেখে গেছেন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এফআর টাওয়ারে উদ্ধার করতে গিয়ে নিহত হয়েছেন। তার মৃত্যুর জন্য আমরা গভীরভাবে দুঃখিত।

এসময় তিনি আরো বলেন, শুধু সোহেল নয়, আমি স্মরণ করতে চাই সিলেটের জঙ্গি হামলার সময় নিহত ফায়ার সার্ভিসের এক কর্মকর্তাকে। আমাদের যেখানে প্রয়োজন অগ্নি সেনারা সেখানে গিয়ে কাজ করছে, দুর্ঘটনাস্থল থেকে জানমাল রক্ষা করছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা সরকারের পক্ষ থেকে তাকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা দেয়ার চেষ্টা করেছি। প্রথমে তাকে সিএমএইচে নেয়া হয়েছে, এরপর প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে তাকে সিঙ্গাপুরে নেয়া হয়েছে।

সোহেল রানার পরিবার কোনো ক্ষতিপূরণ পাবে কি-না এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ক্ষতিপূরণ নয়, আমরা তাকে সহযোগিতা করবো। ইতোমধ্যে ফায়ার সার্ভিস তাকে সহযোগিতা করেছে, প্রধানমন্ত্রীও সহযোগিতা করবেন। ভবিষ্যতে আপনারা তা দেখতে পারবেন।

প্রসঙ্গত, গত ২৮ মার্চ বনানীর কামাল আতাতুর্ক অ্যাভিনিউয়ের পাশের ১৭ নম্বর সড়কে ফারুক রূপায়ন (এফআর) টাওয়ারের ভয়াবহ আগুনে ঘটনাস্থলে ২৫ জন ও হাসপাতালে এক জন নিহত হন। এ ঘটনায় আরও ৭৩ জন আহত হন।

এফআর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডে আটকা পড়াদের উদ্ধার করতে গিয়ে আহত হন ফায়ার সার্ভিস কর্মী সোহেল রান। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সিএমএইচে ভর্তি করা হয়। পড়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সিঙ্গাপুরে নেয়া হয়।

রবিবার দিবাগত রাতে সিঙ্গাপুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। সোহেলের নিহতের মাধ্যমে এফআর টাওয়ার অগ্নিকাণ্ডে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ২৭ জনে দাঁড়াল।

Bootstrap Image Preview