Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২১ রবিবার, জুলাই ২০১৯ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

‘বাংলাদেশের চেয়ে ভারতে সংখ্যালঘু নির্যাতন বেশি হচ্ছে’

লালমনিরহাট প্রতিনিধি:
প্রকাশিত: ২১ মার্চ ২০১৯, ১০:১৭ PM
আপডেট: ২১ মার্চ ২০১৯, ১১:০০ PM

bdmorning Image Preview


কোলকাতা মানবধিকার সুরক্ষা মঞ্চ (মাসুম) এর সম্পাদক কিরীটি রায় বলেছেন, বাংলাদেশে যে হারে ধর্ম নিয়ে রাজনীতি হয়, তার চেয়ে অনেক বেশী ধর্ম নিয়ে রাজনীতি হয় ভারতে। বাংলাদেশের সংখ্যালঘু হিন্দু, বৌদ্ধ, খৃষ্টান সম্প্রদায়ের লোকজন অনেকটা ভাল আছেন। কিন্তু ভারতের সংখ্যালঘু মুসলমানরা ভাল নেই।

বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) সন্ধ্যায় লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা আলিমুদ্দিন সরকারি কলেজ হলরুমে সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দের সাথে এক মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ’র সূত্র মতে গত ১ বছরে তাদের গুলিতে দুই সীমান্তের ২ শত মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। এদের মধ্যে ১৬০/১৬৫ জন ভারতীয় আর বাকিরা বাংলাদেশি। সীমান্তে প্রতিনিয়ত বিএসএফ’র রাষ্ট্রীয় নির্যাতন বেড়েই চলেছে। সীমান্ত হয়ে উঠছে অনিরাপদ জনপদ।

তিনি আরও বলেন, ভারতে গরুর মাংস বিক্রি করার অপরাধে নিরীহ মুসলমানকে কুপিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। রাষ্ট্রের কারণেই আজও বিচার হয়নি ফেলানী হত্যার। বাংলাদেশে কিছুটা আইনের শাসন প্রতিষ্টিত হলেও ভারতে আইনের শাসন এখন পর্যন্ত প্রতিষ্টিত হচ্ছে না।

তিনি দাবি করেন, ভারতের জেলখানা গুলোতে হাজার হাজার বাংলাদেশি আটকা রয়েছে। তাদের সাজা শেষ হলেও দেশে ফেরত দেয়া হচ্ছে না। ভারতে সব ক্ষেত্রে মানবধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে। সে তুলনায় বাংলাদেশ অনেক ভাল আছে। কাশমীরে যে যুদ্ধ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে এর জন্য ভারতেই দায়ি।

এর আগে কোলকাতা মানবধিকার সুরক্ষা মঞ্চ (মাসুম) এর সম্পাদক কিরীটি রায় হাতীবান্ধা উপজেলার বিলুপ্ত বিভিন্ন ছিট মহল ঘুরে লোজনের সাথে কথা বলেন।

Bootstrap Image Preview