Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৭ সোমবার, জুন ২০১৯ | ২ আষাঢ় ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

নিউজিল্যান্ডে হামলা: মুসলমানদের ওপর ‘দোষ চাপানো’ সেই সিনেটরের মাথায় ডিম নিক্ষেপ

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৬ মার্চ ২০১৯, ০২:৫০ PM
আপডেট: ১৬ মার্চ ২০১৯, ০২:৫০ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত ছবি


নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুইটি মসজিদে বন্দুকধারীর হামলার ঘটনায় মুসলিমদের ওপরই দোষ চাপিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার সিনেটর ফ্রেজার অ্যানিং বলেন, ‘নিউজিল্যান্ডের রাস্তায় আজকের রক্তপাতের আসল কারণ ধর্মান্ধ মুসলিমদেরকে প্রথমবার নিউজিল্যান্ডে বসবাসের সুযোগ দেওয়া।’

সিনেটর ফ্রেজারের এমন মন্তব্যের জের ধরে তার মাথায় ডিম ভেঙেছেন এক যুবক। এ ঘটনার একটি ভিডিও ইতোমধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে অনলাইনে। ভিডিওতে দেখা যায়, সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেয়ার মূহুর্তে সাদা টি-শার্ট পরা এক যুবক পেছন থেকে এসে সিনেটরের মাথায় ডিম ভাঙেন। সাথে সাথে পেছনে ফিরে ওই যুবককে মারতে থাকেন ফ্রেসার অ্যানিং।

এর আগে শুক্রবার মসজিদে হামলাকে সন্ত্রাসী হামলার পরিবর্তে ‘সহিংস সতর্কতা’ হিসেবে অভিহিত করে অ্যানিং বিবৃতিতে বলেন, আমাদের অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড উভয় সম্প্রদায়ের মধ্যে ভয় বৃদ্ধি করছে মুসলমানদের ক্রমবর্ধমান উপস্থিতি।

সিনেটর অ্যানিং বলেন, সবসময়ের মতো বামপন্থী রাজনীতিকেরা এবং গণমাধ্যমগুলোর দাবি আজকের গোলাগুলির কারণ বন্দুক সংক্রান্ত আইন বা জাতীয়তাবাদী মতাদর্শের সঙ্গে সম্পৃক্ততা। কিন্তু এসব বোকাদের চিন্তাভাবনা। তিনি বলেন, নিউজিল্যান্ডে রক্তপাতের প্রকৃত কারণ হলো ইমিগ্রেশন প্রোগ্রাম। কারণ এর ফলে মুসলিম ধর্মান্ধদেরকে নিউজিল্যান্ডে বসবাসের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

অবশ্য অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন ওই সিনেটরের বক্তব্যকে ‘বিরক্তিকর’ বলে নিন্দা জানিয়েছেন।

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী টুইটারে বলেন, ‘দেশটিতে চরমপন্থী সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগে সিনেটর ফ্রেজার অ্যানিংয়ের মন্তব্য বিরক্তিকর।’

তিনি বলেন, তার এই মতামতের অস্ট্রেলিয়ার কোনো স্থান নেই, এটা একান্ত একজন সংসদের মত।

উল্লেখ্য, নিউল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে শুক্রবার জুমার নামাজের সময় সন্ত্রাসী হামলা চালায় এক অস্ট্রেলিয়ান যুবক। এতে বাংলাদেশী ২ জনসহ অন্তত ৪৯ জন নিহত এবং ৪৮ জন গুরুতর আহত হয়েছেন। ভাগ্যের জেরে বেঁচে গিয়েছেন বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা।

Bootstrap Image Preview