Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৪ রবিবার, মার্চ ২০১৯ | ৯ চৈত্র ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

১৬ থেকে ২২ মার্চ পালিত হবে 'জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ'

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৫ মার্চ ২০১৯, ১১:৪০ AM
আপডেট: ১৫ মার্চ ২০১৯, ১১:৪০ AM

bdmorning Image Preview
ছবি: বিডিমর্নিং


"কোনো জাল ফেলবো না, জাটকা ইলিশ ধরব না" এই প্রতিপাদ্যে বিগত বছরের ন্যায় আগামীকাল ১৬ মার্চ থেকে ২২ মার্চ পযন্ত ৭দিনব্যাপী পালিত হবে 'জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ ২০১৯।

শুক্রবার বেলা ১১টায় মৎস্য অধিদফতর, মৎস্যভবনের সম্মেলন কক্ষে জাটকাসংরক্ষণ (নিধনরোধ) সপ্তাহ-২০১৯ উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে মৎস্য প্রতিমন্ত্রী মোঃ আশরাফ আলী খান খসরু এ কথা জানান।

এ সময় তিনি বলেন, কারেন্ট জালসহ যেসব জাল ব্যাবহার করে জাটকা নিধন করা হয় তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হচ্ছে এবং যারা এইসব জাল তৈরি করে তাদেরকে আমরা খুচ্ছি, আমরা তাদেরকেও  আইনের আওতায় আনবো।

জাটকা সংরক্ষণের লক্ষে সাত দিনব্যাপী কেন্দ্রীয় এবং জেলা/উপজেলা পর্যায়ে কর্মসূচি পালিত হবে এবং এবছর ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলায় জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ উদ্ভোদন এবং তৎসংলগ্ন মেঘনা নদীতে র‍্যালি অনুষ্ঠিত হবে বলে মন্ত্রী জানান।

জাটকা ও মা ইলিশ রক্ষার কাযক্রম গত ২০১৭-১৮তে যথাযথভাবে পালিত হয়েছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়ে ৫.১৭ লক্ষ মে. টনে উন্নিত হয়েছে। প্রয়োজনীয়তার নিরিখে বিদ্যমান নিরিখে বিদ্যমান  আইন সংশোধন করে জাটকা আহরণ নিষিদ্ধের সময় ১মাস বাড়িয়ে নভেম্বর থেকে জুন পর্যন্ত করা এবং জাটকার দৈর্ঘ ২৩ সেন্টিমিটার হতে বৃদ্ধি করে ২৫ সেন্টিমিটার করা হয়েছে। কেবল জাটকা রক্ষা নয়, মা ইলিশ সুরক্ষা আইনটি সঠিকভাবে সংশোধনের ফলে মা ইলুশ নিরাপদে ডিম ছারতে পেরেছে তাই নিম্ন মেঘনা হতে জাটকা আজ পদ্মা, যমুনা, ব্রাহ্মপুত্র সুরমায় বিস্তার লাভ করছে।

এতে আরও উপস্থিত ছিলেন, প্রাণীসম্পদ মন্ত্রী মোঃ আশরাফ আলী খান খসরু, মতস ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ রইছউল আলম মন্ডল, মতস অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবু সাইদ ও রাশেদুল হক, বিএফআরআই'র মহাপরিচালক, মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের উর্দতন কর্মকতাগণ।

Bootstrap Image Preview