Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৩ বুধবার, অক্টোবার ২০১৯ | ৮ কার্তিক ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

বখাটেদের যৌন লালসার শিকার হলো ৮ম শ্রেণির ছাত্রী, অতঃপর...

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৩ মার্চ ২০১৯, ১১:২৬ AM
আপডেট: ১৩ মার্চ ২০১৯, ১১:২৬ AM

bdmorning Image Preview
প্রতীকী ছবি


বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জে অনৈতিক প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ এবং ধর্ষণের ভিডিওচিত্র ধারণের অভিযোগে অভিযুক্ত আজিজুল ওরফে তুষারসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। 

গত সোমবার বিকেলে বরিশালের নারী ও শিশু নির্যাতন অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালে ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রী বাদী হয়ে এই মামলা দায়ের করেন। 

মামলার অপর আসামিরা হলেন- আজিজুলের মা কহিনুর বেগম, ভাইয়ের স্ত্রী তানিয়া বেগম, আত্মীয় মিলি বেগম ও মঞ্জু বেপারী।

ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. আবু শামীম আজাদ শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ এবং ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারের (ওসিসি) সমন্বয়কারীকে ছাত্রীর ধর্ষণ সংক্রান্ত মেডিকেল পরীক্ষা সম্পন্ন করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। একই সাথে প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে আগামী ২৪ মার্চ মামলার আদেশ দানের পরবর্তী দিন ধার্য্য করেন ট্রাইব্যুনাল। 

ট্রাইব্যুনাল সূত্র থেকে জানা যায়, উপজেলার দড়িরচর খাজুরিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে বিদ্যালয়ে যাওয়া আসার পথে প্রায়ই কু-প্রস্তাব দিত আজিজুল। ওই ছাত্রী প্রেমে রাজি না হওয়ায় তুষার ক্ষিপ্ত হয়। ঘটনার দিন ২০১৮ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর সকালে আজিজুলের ভাবী তানিয়া ওই ছাত্রীকে কথা শোনার জন্য তার ঘরে ডেকে নেয়। ছাত্রী ঘরে প্রবেশ করে আজিজুলকে দেখতে পায়। কিন্তু এর আগেই তানিয়া ঘরের দরজা বন্ধ করে চলে যায়। পরে আজিজুল ওই ছাত্রীকে জোর করে মিষ্টি খাইয়ে দেয়। এতে ছাত্রী অজ্ঞান হয়ে পড়লে আজিজুল তাকে ধর্ষণ করে এবং ধর্ষণের ভিডিওচিত্র মোবাইলে ধারণ করে। 

প্রায় ৩০ মিনিট পর ওই ছাত্রীর জ্ঞান ফিরে আসে এবং সে ওই ঘরে মামলায় অভিযুক্ত অন্যদের দেখতে পায়। ওই ছাত্রী বিষয়টি তার অভিভাবকদের জানালে তারা আজিজুলের বাবা-মাকে জানায়। আজিজুলের বাবা-মা কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় আদালতে মামলা করেন ধর্ষিতা ওই ছাত্রী। 

Bootstrap Image Preview