Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২১ শনিবার, সেপ্টেম্বার ২০১৯ | ৫ আশ্বিন ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের জন্য আসছে ‘স্টুডেন্ট টু স্টার্টআপ’

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬ মার্চ ২০১৯, ০৬:৫২ PM
আপডেট: ০৬ মার্চ ২০১৯, ০৬:৫২ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত ছবি


দেশ গঠনে তরুণদের উদ্ভাবনী ভাবনা ও উদ্যোগকে ব্যবহার করার লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের নিয়ে শুরু হচ্ছে ‘স্টুডেন্ট টু স্টার্টআপ’ বা শিক্ষাজীবন থেকে শুরু করা কার্যক্রম। আগামী ৮ মার্চ কেন্দ্রীয় সমন্বয় কর্মশালার মধ্য দিয়ে শুরু হবে ‘নিজের স্বপ্ন নিজেই গড়ো’ শিরোনামের বিশেষ এ প্রতিযোগিতার প্রথম চ্যাপ্টার।

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের আইসিটি বিভাগের ইনোভেশন ডিজাইন অ্যান্ড এন্ট্রাপ্রেনারশিপ একাডেমি-আইডিয়া প্রকল্প এবং দেশের তরুণদের স্বপ্নের ও সবচেয়ে বড় প্লাটফর্ম ইয়াং বাংলা’র যৌথ উদ্যোগে শুরু হচ্ছে এ স্টার্টআপ প্রতিযোগিতা।

আয়োজন প্রসঙ্গে ইয়াং বাংলার সেক্রেটারিয়েট সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) কো-অর্ডিনেটর তন্ময় আহমেদ জানান, তরুণদের উদ্যমী ও কর্মক্ষম করে গড়ে তুলতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে ইয়াং বাংলা। সে যাত্রায় ‘স্টুডেন্ট টু স্টার্টআপ’ প্রতিযোগিতা যোগ করবে নতুন মাত্রা।

তিনি জানান, এ আয়োজনের মধ্য দিয়ে চলমান বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের উদ্বাবনী ভাবনা ও পরিকল্পনা সংগ্রহ করা হবে। একইসঙ্গে প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া শিক্ষার্থীদের প্রতিষ্ঠান পরিচালনা, চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা এবং ভবিষ্যতে এগিয়ে যাওয়ার বিষয়ে খুঁটিনাটি ধারণাগুলো নিয়ে কাজ করা হবে।

দেশের আট বিভাগ থেকে ৪০টি বিশ্ববিদ্যালয়কে কেন্দ্র করে পরিচালিত হবে ‘স্টুডেন্ট টু স্টার্টআপ:চাপ্টার ওয়ান’ প্রতিযোগিতা। নিজ নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের হয়েও অংশ নিতে পারবেন শিক্ষার্থীরা।

আয়োজক সংশ্লিষ্টরা জানান, স্টুডেন্ট টু স্টার্টআপে প্রতিটি বিশ্ববিদালয়ে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে সহায়তা করবে ইয়াং বাংলার ক্যাম্পাস অ্যাম্বাসেডররা।ক্যাম্পাস পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাছাই করা হবে ৩টি করে দলকে। ৪০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১২০টি দল নিয়ে সাভারে অনুষ্ঠিত হবে ‘জাতীয় স্টার্টআপ ক্যাম্প’।

পরে দর্শক এবং বিচারকদের ভোটে বাছাই করা হবে মূল প্রতিযোগিতার শীর্ষ ৩০ স্টার্টআপ। এরপর জাতীয় পর্যায়ে সেরা ১০ উদ্ভাবনী ভাবনা বা স্টার্টআপ নির্বাচন করেবন ‘আইডিয়া’ প্রকল্পের বাইছাই কমিটি এবং অন্যান্য বিচারকরা।

সিআরআই সমন্বয়ক তন্ময় আহমেদ জানান, দেশের বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায় থেকে বাছাই করা ১০টি দল শেষ পর্যন্ত নিজেদের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য অর্থ ও পরামর্শসহ যাবতীয় সহায়তা পাবে আইডিয়া প্রজেক্ট থেকে। সেই সঙ্গে তাদের জন্য বিভিন্ন সহায়তা নিয়ে পাশে থাকবে প্লাটফর্ম ‘ইয়াং বাংলা’।

‘আইডিয়া’ প্রকল্পের পরিচালক সৈয়দ মজিবুল হক জানান, কোনো দুর্দান্ত উদ্ভাবনী ভাবনা ও পরিকল্পনা যাতে সহায়তা বা পৃষ্ঠপোষকতার অভাবে নষ্ট না হয় সে লক্ষ্যেই কাজ করছে আইসিটি বিভাগের ‘আইডিয়া’। মূলত তরুণ উদ্যোক্তাদের ‘উদ্যোগ’ বা পরিকল্পনা বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে ডিজিটাল বাংলাদেশ আরো এগিয়ে যেতে পারে সে লক্ষ্যে স্টুডেন্ট টু স্টার্টআপ শুরু হয়েছে।

প্রতিবছর দু’বার এমন স্টার্টআপ প্রতিযোগিতার আয়োজন পরিকল্পনা রয়েছে জানিয়ে ‘আইডিয়া’ পরিচালক আরো বলেন, ইয়াং বাংলার সহযোগিতায় জাতীয় পর্যায়ে একটি একাডেমি তৈরির পথেও দ্রুত এগিয়ে চলছে কাযক্রম।

সরকারি-বেসরকারি উদ্যোগের সঙ্গে প্রতিষ্ঠানিক শিক্ষাকে যুক্ত করার মধ্য দিয়ে জাতীয়ভাবে ইনোভেশন কালচার, স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম এবং এন্ট্রাপ্রেনরিয়াল সাপ্লাই চেইন গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাজ শুরু করে সরকারের আইসিটি বিভাগের ‘আইডিয়া’ প্রকল্প। গত বছরের ১৫ মার্চ, প্রকল্পটি চুক্তিবদ্ধ হয় সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) অঙ্গ সংগঠন ইয়াং বাংলার সঙ্গে।

Bootstrap Image Preview