Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৫ শনিবার, মে ২০১৯ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় সব মসজিদে বিশেষ দোয়া-গায়েবানা জানাজা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০৫:৫২ PM
আপডেট: ২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ০৫:৫২ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত


রাজধানীর চকবাজারের চুড়িহাট্টায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে আজ শুক্রবার(২২ ফেব্রুয়ারি) জুমার নামাজে মসজিদে মসজিদে বিশেষ দোয়া হয়েছে। যখন নিহতদের আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়া হচ্ছিল, তখন কান্নার রোল পড়ে যায়। ডুকরে কাঁদতে থাকেন শত শত মানুষ। মসজিদ থেকে প্রায় প্রতিটি মুসল্লিকে বের হওয়ার সময় চোখের জল মুছতে দেখা গেছে।

বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে জুমার নামাজের পর দক্ষিণ গেটে বিশেষ দোয়া ও গায়েবানা নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। মসজিদের খতিব এতে ইমামতি করেন। এর আগে জুমার নামাজের পর নিহতদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয়।

এছাড়া বাদ জুমা বঙ্গভবন জামে মসজিদে দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক, রাষ্ট্রপতির সামরিক সচিব, প্রেস সচিবসহ বঙ্গভবনের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা অংশ নেন।

বঙ্গভবন জামে মসজিদের মোয়াজ্জেম হাফেজ মাওলানা এনামুল হক এ দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন।

এদিকে দূর্ঘটনাস্থলের পাশে চুড়িহাট্টা জামে মসজিদেও বিশেষ দোয়ার আয়োজন করা হয়। মুসল্লিদের সবার জায়গা হয়নি মসজিদে। ফলে পাশের সড়কে বসেও তারা নামাজ পড়েন। পরে অংশ নেন মোনাজাতে। এ মসজিদে স্থানীয় সংসদ সদস্য হাজী সেলিমসহ বিভিন্ন দলের নেতাকর্মীরা এলাকাবাসীর সাথে নামাজ ও মোনাজাতে অংশ নেন। মসজিদের পাশাপাশি অন্য সব ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে নিহতদের স্মরণে বিশেষ প্রার্থনা করা হয়।

গত বুধবার রাত পৌনে ১১টা চকবাজারের চুড়িহাট্টায় ভয়াবহ আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিসের ৩৭ ইউনিটের চেষ্টায় ১২ ঘণ্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। এখন পর্যন্ত ৬৭ জনের মৃত্যুর নিশ্চিত করেছে প্রশাসন। এরইমধ্যে শনাক্ত হওয়া ৪০টি মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। অগ্নিদগ্ধ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন অর্ধশত। এই ঘটনায় শোকের আবহ দেখা দিয়েছে গোটা দেশে।

Bootstrap Image Preview