Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৪ বৃহস্পতিবার, নভেম্বার ২০১৯ | ৩০ কার্তিক ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

রচনা লিখে কানাডায় বাড়ি জেতার সুযোগ

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৭ জানুয়ারী ২০১৯, ০২:০৬ PM
আপডেট: ২৭ জানুয়ারী ২০১৯, ০২:০৬ PM

bdmorning Image Preview


রচনা লিখে বাড়ি জেতার সুযোগ দিয়েছেন কানাডায় অ্যালা ওয়াগনার নামে এক বাড়ির মালিক। বাড়িরচনা লিখুন, বাড়ি জিতুন! রচনা লিখেই কানাডার ক্যালগ্যারি শহরের কাছে একটি বাড়ির মালিক হওয়ার সুযোগ পাবে বিজয়ী। এর আয়োজন করেছেন বাড়িটির মালিক অ্যালা ওয়াগনার নিজেই বলে জানিয়েছেন আর্ন্তোজাতি গণমাধ্যম বিবিসি।

রচনা লিখার আগ্রহীদের প্রত্যেককে এন্ট্রি ফি দিতে হবে ১৯ ডলার। প্রতিযোগিতার প্রশ্ন হলো, এমন স্বপ্নের বাড়িতে বসবাস করলে কেন জীবন বদলে যাবে?

অ্যালা ওয়াগনার জানিয়েছেন, শারীরিক অসুস্থতার কারণে নিজের প্রিয় বাড়িটি ছেড়ে দিচ্ছেন। এর মূল্য ১৭ লাখ কানাডিয়ান ডলার। কিন্তু কোনো ক্রেতা পাননি। ফলে বিভিন্ন সময়ে অনুষ্ঠিত একই ধরনের প্রতিযোগিতায় অনুপ্রাণিত হয়ে তিনিও একই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অ্যালা লিখেছেন, ‘বাড়িটিতে আমার পরিবারের কাটানো দারুণ সময়ের স্মৃতিগুলো অমূল্য। পুকুরে রাজহংসীদের ভেসে বেড়ানো, ওপরে খোলা আকাশ আর তারকাময় রাত্রি, আশেপাশে বন্যপ্রাণী ও তুষারঢাকা পর্বত দেখতে ভালো লাগে আমার।’

ক্যালগ্যারির ৬৫ কিলোমিটার (৪০ মাইল) দক্ষিণে আলবার্তা প্রদেশের মিলারভিল গ্রামে বাড়িটি অবস্থিত। অনলাইন আবাসন তালিকায় উল্লেখ করা হয়েছে, জর্জিয়ান ঢঙর ডিজাইন রয়েছে এতে। ৩ হাজার ৮৫০ বর্গফুট (৩৬০ বর্গমিটার) আয়তনের বাড়িটির চারপাশে পাহাড়-পর্বতের সুদৃশ্য চিত্র। এতে রয়েছে তিনটি শোবার ঘর। বাড়িটিকে লেখক কিংবা শিল্পীদের জন্য নন্দনকানন মনে করেন অ্যালা।

কানাডায় অ্যালা ওয়াগনারের বাড়ির ইন্টেরিয়র জানায়, যেসব রচনা জমা পড়বে সেগুলোতে ভোট দেবেন সাধারণ মানুষ। এভাবে ৫০০ জনকে বেছে নেওয়া হবে। তাদের লেখা পর্যালোচনা করবে বিচারকদের একটি মুক্ত প্যানেল। তারাই চূড়ান্ত বিজয়ীকে নির্বাচন করবেন। এ বছরের এপ্রিল পর্যন্ত প্রতিযোগিতাটি উন্মুক্ত। তবে ৬০ হাজারের কম রচনা এলে প্রতিযোাগিতার সময়সীমা আরও বৃদ্ধি করা হতে পারে। কারণ এন্ট্রি ফি দিয়ে বাড়ির মূল্য তোলার লক্ষ্য অ্যালার। তাই খুব কমসংখ্যক রচনা এলে প্রতিযোগিতা বাতিলও করে দিতে পারেন তিনি।

বাড়ি জেতার জন্য রচনা প্রতিযোগিতা এর আগেও হয়েছে। ২০১৫ সালে এমন আয়োজনের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের মেইন রাজ্যের সেন্টার লোভেল ইনের মালিকানা হস্তান্তর করা হয়। 

এছাড়া ১৯৯৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘স্পিটফায়ার গ্রিল’ ছবিতে একটি ক্যাফের জন্য একইরকম প্রতিযোগিতা দেখানো হয়। এসব উদ্যোগ অনুপ্রাণিত করেছে অ্যালা ওয়াগনারকে।

Bootstrap Image Preview