Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২০ রবিবার, জানুয়ারী ২০১৯ | ৭ মাঘ ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

অযৌক্তিভাবে ‘ব্লাউজ’ ট্রল হওয়ায় মর্মাহত অঞ্জনা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৩:৫৭ PM
আপডেট: ২৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৩:৫৭ PM

bdmorning Image Preview


‘আজ থেকে ৩০-৩৫ বছর এগে যখন আমরা গ্রামে-গঞ্জে শুটিংয়ে যেতাম দেখতাম নিম্নবিত্ত নারীরা একটা শাড়ি প্যাঁচিয়ে শুটিং দেখতে আসছেন। তাদের শরীরে কোনো ব্লাউজ ছিলো না। শুটিং ইউনিটের সবাই তাদের দেখে বিব্রত হতো। জিজ্ঞেস করতাম তারা কেন ব্লাউজ পরে না। জবাব দিতো, অর্থের অভাবে ব্লাউজ কেনার সামর্থ হয় না। বহু কষ্টে একটা শাড়ি জুটে।’ এভাবেই নিজের অভিজ্ঞতার কথা বলেন এক সময়ের পর্দা কাঁপানো নায়িকা অঞ্জনা।

একটি বেসরকারি টেলিভিশনের টক শো-তে উপস্থিত হয়ে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন ও সক্ষমতার প্রসঙ্গে ব্লাউজ নিয়ে একটি মন্তব্য করেন অঞ্জনা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার সেই মন্তব্য ট্রোলড আকারে ভাইরাল হয়ে যায়। তিনি আসলে কথাটি যে আঙ্গিকে বলেছেন অনেকেই সেটি না বুঝে ট্রল করে যাচ্ছেন।

অঞ্জনা বলতে চেয়েছেন, সেইসব অঞ্চলে এখন বৈপ্লবিক পরিবর্তন এসেছে। গ্রামের নারীরা এখন ব্লাউজ পরছে, ম্যাক্সিও পরছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলগুলোতে অর্থনৈতিক উন্নয়ন এসেছে। সেখানকার মানুষ এখন নিজেদের মৌলিক চাহিদা পূরণ করতে পারছে। তাই নারীরাও নিজেদের জীবন যাপনে পরিবর্তন আনতে পেরেছেন। এটা গত দশ বছরে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের স্রোতেই হয়েছে।

অঞ্জনার মতে, যারা ট্রল করছে তারা আজ থেকে ৩০-৩৫ বছর আগের দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের চেহারা দেখেনি।

আক্ষেপ করে এই অভিনেত্রী বলেন, ‘আমি কিন্তু ওই টক-শোতে অনেক ইতিবাচক কথা বলেছি। সেগুলো কিন্তু ভাইরাল হয়নি, ট্রল হয়নি। আমরা নেগেটিভ অর্থে একটা জিনিস ব্যাপকভাবে গ্রহণ করি, পজেটিভ নিতে চাই না। তারপরেও যদি আমার মন্তব্যে কেউ আহত হোন বা কাউকে আঘাত করে থাকি তাহলে আমাকে মাফ করে দেবেন। কিন্তু আমি বলবো আমার কথার মর্মার্থ বোঝার চেষ্টা করবেন। কারণ আমি ভুল কিছু বলিনি।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমি খুবই আহত হয়েছি সম্পূর্ণই অযৌক্তিভাবে ‘ব্লাউজ’ ট্রল হওয়াতে। এটি নারীদের পোশাক। এজন্যই এটি দ্রুত ট্রলের শিকার হয়েছে। যদি পুরুষের পাঞ্জাবীর কথা আসতো মনে হয় না এতো রিঅ্যাক্ট হতো। আসলে এখানে নারীদেরকেই হেয় করা হচ্ছে। অনেক নারীরাও নিজেদের অবচেতন মনে সেটাকে উস্কানি দিচ্ছেন।’

Bootstrap Image Preview