Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ২৪ রবিবার, মার্চ ২০১৯ | ১০ চৈত্র ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

প্রেমিককে পাইলট বানাতে বাবার কোটি টাকা লুট করলেন প্রেমিকা

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৯:১৮ PM
আপডেট: ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০৯:১৮ PM

bdmorning Image Preview
সংগৃহীত


প্রেমিক হেত শাহের স্বপ্ন বিমানের পাইলট হওয়ার। কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ালো অর্থ। যার জন্য পাইলট ট্রেনিং ইনস্টিটিউটে প্রশিক্ষণ নিতে পারছিলেন না শাহ। তার এই স্বপ্নের কথা শুনে ডাকাত বনে গেলেন প্রেমিকা। নিজের বাড়িতে প্রায় কোটি টাকার গয়না ও নগদ অর্থ লুট করেছেন।

অভিযুক্ত তরুণী প্রিয়াঙ্কা পারসানার বাড়ি বেঙ্গালুরুর ভক্তিনগরের অভিজাত এলাকা গীতাঞ্জলি পার্কে। প্রেমিক হেত শাহ থাকেন এয়ারপোর্ট রোডের একটি আবাসনে। সিএ পড়তে গিয়ে প্রাইভেটে দু’জনের পরিচয় এবং সেখান থেকেই মন দেয়া-নেয়া।

ভারতীয় গণমাধ্যমের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রেমিকের স্বপ্ন পূরণের দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিলেন প্রেমিকা প্রিয়াঙ্কা পারসানা (২০)। ভারতের বেঙ্গালুরুর পাইলট ট্রেনিং ইনস্টিটিউটে প্রেমিকের প্রশিক্ষণের টাকা জোগার করতে নিজের বাড়িতেই ডাকাতি করেন তিনি। আলমারিতে লুকিয়ে রাখা বাবার প্রায় এক কোটি টাকা মূল্যের গয়না এবং নগদ টাকা লুট করেন প্রিয়াঙ্কা। বাড়ির লোকজন যাতে ডাকাতি হয়েছে বলে মনে করেন; সেজন্য বাড়ির আলমারির জিনিসপত্র লন্ডভন্ড করেন। পরে প্রিয়াঙ্কার শিল্পপতি বাবা কিশোর পারসানা থানায় গিয়ে ডাকাতির অভিযোগ করেন। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে বাইরের লোক নয়; বরং বাড়ির কোনো সদস্যই এই কাজ করেছে। একে একে জেরা শুরু হয়। প্রিয়াঙ্কাকে জেরা করতেই বেরিয়ে আসল ঘটনা।

পুলিশ বলছে, গত ২৯ নভেম্বর প্রিয়াঙ্কা বাড়ি থেকে তিন কেজি সোনার ও দুই কেজি রূপার গয়না ডাকাতি করেছিলেন; যার মূল্য প্রায় ৯০ লাখ ৬৪ হাজার টাকা। ওইদিন তার মা এবং বোন বাড়িতে ছিলেন না। দুপুর দেড়টার দিকে এসব অলঙ্কার লুটের পর বাড়িতে তালা দিয়ে পালিয়ে যান প্রিয়াঙ্কা। পরে দুপুর আড়াইটার দিকে প্রিয়াঙ্কার বাবা বাড়িতে দুপুরের খাবারের জন্য আসেন। এসময় আলমারি লন্ডভন্ড দেখতে পান তিনি। আলমারিতে রাখা সোনা ও রূপার গয়না না পেয়ে পুলিশকে ফোন করে জানান, তার বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে।

প্রিয়াঙ্কার বাবা অভিযোগ জানানোর ১৭ দিনের মধ্যে কোটি টাকার ডাকাতির এ ঘটনার কিনারা করে পুলিশ। পুলিশের কাছে দেয়া মেয়ের স্বীকারোক্তি শুনে ভেঙে পড়েন কিশোর পারসানা ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা।

Bootstrap Image Preview