Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৫ রবিবার, ডিসেম্বার ২০১৯ | ১ পৌষ ১৪২৬ | ঢাকা, ২৫ °সে

আজিজুল হক-সেলিনা হোসেনের হাতে ডি-লিট ডিগ্রি তুলে দিলেন রাষ্ট্রপতি

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০:৩৬ PM
আপডেট: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১২:১২ AM

bdmorning Image Preview


উপমহাদেশের বিশিষ্ট কথা সাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক ও সেলিনা হোসেন সম্মানসূচক ডক্টর অফ লিটারেচার (ডি-লিট) ডিগ্রিতে ভূষিত হয়েছেন।

শনিবার বিকেলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দশম সমাবর্তনে তাদের হাতে এই ডিগ্রি ও অভিজ্ঞানপত্র তুলে দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

এসময় রাষ্ট্রপতি বলেছেন, দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলো মুক্তচিন্তা বিকাশের জায়গা। চর্চা ও গবেষণার মধ্য দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে জ্ঞান ও প্রযুক্তির জন্ম হয়। এসব জ্ঞান ও প্রযুক্তি ক্রমে সমগ্র বিশ্বের সম্পদে পরিণত হয়। এর ফলে পৃথিবী সামনের দিকে এগিয়ে যেতে থাকে।

রাষ্ট্রপতি তার বক্তব্যে বলেন, উচ্চশিক্ষা যাতে সার্টিফিকেট সর্বস্ব না হয় কিংবা শিক্ষা যাতে বাণিজ্যিক পণ্যে পরিণত না হয় তা দেশ ও জাতির স্বার্থে সম্মিলিতভাবে নিশ্চিত করতে হবে। এটা করতে না পারলে দেশে উচ্চশিক্ষিত বেকারদের সংখ্যা বাড়বে এবং বিশ্ব প্রতিযোগিতায় আমরা পিছিয়ে পড়বো।

শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, শিক্ষকতা কেবল পেশা নয়, একটি আদর্শ। প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে টিকে থাকা এবং এগিয়ে চলার বিষয়টি মাথায় রেখে আমাদের শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে। পাশাপাশি উচ্চশিক্ষার মান নিয়ে কেউ যেন প্রশ্ন তুলতে না পারে সেটাও নিশ্চিত করতে হবে।

প্রসঙ্গত, ভারতের আসাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০১২ সালে সম্মানসূচক ডি-লিট ডিগ্রিতে ভূষিত হন হাসান আজিজুল হক। তিনি মূলত গল্পকার। ভাষা ব্যবহারের নৈপুণ্য এবং জীবনবোধের গভীরতার কারণে তিনি দেশ-বিদেশে সমাদৃত। গল্প লেখার পাশাপাশি উপন্যাস লেখায়ও তিনি সিদ্ধহস্ত। প্রবন্ধকার হিসেবেও তিনি দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। পৃথিবীর উল্লেখযোগ্য প্রায় সব ভাষায় তার সাহিত্য অনূদিত হয়েছে।

এদিকে বাংলা সাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য সেলিনা হোসেন ২০১০ সালে ভারতের রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানসূচক ডি-লিট ডিগ্রিতে ভূষিত হন। তিনি মূলত কথা সাহিত্যিক। বাংলাদেশের সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক ইতিহাস তার কথা সাহিত্যের বিষয়বস্তু।

Bootstrap Image Preview